পাতা:করিম সেখ - জলধর সেন.pdf/৫৫

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


করিম সেখ 8S হইতেই আমীর মণ্ডলের বাড়ীতে পাচিকার কাৰ্য্যে নিযুক্ত হইল। মণ্ডল-বাড়ীর সকলের আহার হইয়া গেলে সে এক শানকী ভাত তরকারী লইয়া বাড়ী আসিত এবং তােহা বুড়ীকে খাইতে দিত ; নিজে দিনের বেলায় উপবাসী থাকিত । বুড়ী তাহার আহারের কথা জিজ্ঞাসা করিলে সে বলিত “আমি সেখান থেকেই খেয়ে দেয়ে তারপর তোমার ভাত নিয়ে আসি । আমাকে তারা যে ভাত দেয়। তার কিছু আমি সেখানে খাই, আর এ কয়টা ভাত তোমারই জন্য নিয়ে আসি।” বুড়ী বৌয়ের কথাই ; বিশ্বাস করিত। বুড়ী বেীকে বলিয়া দিয়াছিল যে রাত্ৰিতে আর তাহার জন্য ভাত আনিবার দরকার নাই ; সে রাত্ৰিতে আহার করিবে না । সুতরাং রাত্ৰিতে যে ভাত পাইত, বীে তাহাই খাইত । এই ভাবেই চার পাচ দিন কাটিয়া গেল । S \) করিম বসিরকে মৃত মনে করিয়া নদীর জলে ভাসাইয়া দিয়া চলিয়া আসে, এ সংবাদ পাঠকগণ অবগত আছেন ৷ করিমের প্রদত্ত বিষ পান করিয়া বসির অচেতন হইয়া পড়ে ; কিন্তু করিম যখন তাহাকে জলে ফেলিয়া দিয়াছিল, প্রকৃতপক্ষে তখনও তাহার श्रृङ्का छ्न्न नाश् । कब्रिभ शनि दनिब्रटक आइ७ घोक्ने छश् ८नोकाब्र রাখিত তাহা হইলে হয় তা বসির মরিয়া যাইত । কিন্তু করিম কালবিলম্ব করিতে সাহস পায় নাই ; কি জানি হঠাৎ যদি কোন নৌকা সেখানে আসিয়া উপস্থিত হয়, তাহা হইলে হয় ত সে ধরা পড়িতেও পারে। সে আরও মনে করিয়াছিল যে, নদীর মধ্যে