পাতা:কাব্যগ্রন্থ (অষ্টম খণ্ড).pdf/১৯৭

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


শারদোৎসব পারবে । কিন্তু তা হোকগে, আমি তোমার চেলা হতে পারব না ! প্রণাম | ( প্রস্থান ) (ঠাকুরদাদার প্রবেশ ) সন্ন্যাসী ঠাকুর্দা, আজ অনেক দিন পরে একটি কথা খুব স্পষ্ট বুঝতে পেরেচি—সেটি তোমাকে খুলে না বলে থাকতে পারচিনে । * * ঠাকুরদাদা আমার প্রতি ঠাকুরের বড় দয়া ! সন্ন্যাসী བརྡའི་དམ་ আমি অনেকদিন ভেবেচি জগৎ এমন আশ্চৰ্য্য সুন্দর কেন ? কিছুই ভেবে পাইনি। আজ স্পষ্ট প্রত্যক্ষ দেখতে পাচ্চি—জগৎ আনন্দের ঋণ শোধ করচে! বড় সহজে করচে না, নিজের সমস্ত শক্তি দিয়ে সমস্ত ত্যাগ করে করচে! সেই জন্যেই ধানের ক্ষেত এমন সবুজ ঐশ্বৰ্য্যে ভরে উঠেচে, বেতসিনীর নিৰ্ম্মল জল এমন কানায় কানায় পরিপূর্ণ ! কোথাও সাধনার এতটুকু বিশ্রাম নেই, সেই জন্যেই এত সৌন্দৰ্য্য! ঠাকুরদাদা একদিকে অনন্ত ভাণ্ডার থেকে তিনি কেবলি ঢেলে দিচ্চেন আর একদিকে কঠিন দুঃখে তারি শোধ চলচে । সেই X ዓGU