পাতা:কাব্যগ্রন্থ (চতুর্থ খণ্ড).pdf/১০১

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


স্বার্থ কেরে তুই, ওরে স্বার্থ, তুই কতটুক্‌, তোর স্পর্শে ঢেকে যায় ব্রহ্মাণ্ডের মুখ, লুকায় অনন্ত সত্য,—স্নেহ সখ্য প্রীতি মুহূৰ্বে ধারণ করে নির্লজ্জ বিকৃতি,— থেমে যায় সৌন্দর্ঘ্যের গীতি চিরন্তন তোর তুচ্ছ পরিহাসে । ওগো বন্ধুগণ সব স্বার্থ পূর্ণ হোক। ক্ষুদ্রতম কণা ভাণ্ডারে টানিয়া আন—কিছু ত্যজিয়ো না আমি লইলাম বাছি চিরপ্রেমখানি জাগিছে যাহার মুখে অনন্তের বাণী অমৃতে অশ্রুতে মাখা । মোর তরে থাক পরিহাস্য পুরাতন বিশ্বাস নির্ববাক । থাক মহাবিশ্ব, থাক হৃদয়-আসীন অন্তরের মাঝখানে যে বাজায় বীণা ৷ ১১ই শ্রাবণ, ১৩০৩ । 어(