পাতা:কাব্যগ্রন্থ (চতুর্থ খণ্ড).pdf/১৯৮

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


প্রকাশ হাজার হাজার বছর কেটেছে, কেহ ত কহেনি কথা । ভ্রমর ফিরেছে মাধবীকুঞ্জে, তরুরে ঘিরেছে লতা ; চাদেরে চাহিয়া চকোরী উড়েছে, তড়িৎ খেলেছে মেযে, সাগর কোথায় খুজিয়া খুজিয়া তটিনী ছুটেছে বেগে ; ভোরের গগনে অরুণ উঠিতে কমল মেলেছে আঁখি, নবীন আষাঢ় যেমনি এসেছে চাতক উঠেছে ডাকি ; এত যে গোপন মনের মিলন ভুবনে ভুবনে আছে, সে কথা কেমনে হইল প্রকাশ প্রথম কাহার কাছে । না জানি সে কবি জগতের কোণে কোথা ছিল দিবানিশি, লতাপাতা-চাদ-মেঘের সহিতে এক হ’য়ে ছিল মিশি’ । ফুলের মতন ছিল সে মৌন মনের আড়ালে ঢাকা, চাদের মতন চাহিতে জানিত নয়ন স্বপনমাখা ; বায়ুর মতন পারিত ফিরিতে অলক্ষ্য মনোরথে ভাবনাসাধনা-বেদনাবিহীন বিফল ভ্রমণপথে ; মেঘের মতন আপনার মাঝে ঘনয়ে আপন ছায়া এক বসি’ কোণে জানিত রচিতে ঘনগম্ভীর মায়া । দ্যুলোকে ভূলোকে ভাবে নাই কেহ আছে সে কিসের খোজে, হেন সংশয় ছিল না কাহারো, সে যে কোনো কথা বোঝে । Տ ԳՉ