পাতা:কাব্যগ্রন্থ (নবম খণ্ড).pdf/৬১৮

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


ফাঙ্কনী চন্দ্রহাস । আমরা তাকে কষে গরম করে দেব, সে ভাবনা নেই। এখন দেখা পেলে হয় । তুমি তাকে দেখেচ ? কোটাল। আমার রাতের বেলার পাহারা—দেখি ঢের লোক, চেহারা বুঝিনে। কিন্তু বাপু, তাকেই সকলে বলে ছেলে-ধরা, উণ্টে তোমরা তা’কে ধরতে চাও— এটা যে পূরো পাগলামি । দেখেচ ? ধরা পড়েচি । পাগলামিই ত! চিনতে দেরি হয় না । কোটাল। আমি কোটাল, পথ-চলতি যাদের দেখি সবাই এক ছাঁচের। তাই অদ্ভুত কিছু দেখলেই চোখে ঠেকে। ঐ শোন ! পাড়ার ভদ্রলোকমাত্রই ঐ কথা বলে— আমরা অদ্ভুত । আমরা অদ্ভুত বই কি, কোনো ভুল নেই। কোটাল। কিন্তু তোমরা ছেলেমানষি করচ । ঐরে, আবার ধরা পড়েচি। দাদাও ঠিক ঐ কথাই বলে । অতি প্রাচীন কাল থেকে আমরা ছেলেমানষিই করচি। ওতে আমরা একেবারে পাকা হ’য়ে গেচি । চন্দ্রহাস । আমাদের এক সর্দার আছে সে ছেলেমানষিতে প্রবীণ। সে নিজের খেয়ালে এমনি হুহু করে চলেচে ©Ꭳ8