পাতা:কাব্যগ্রন্থ (পঞ্চম খণ্ড).pdf/১৮১

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


গান্ধারীর আবেদন করিতেছে অশুভ চীৎকার,—পদে পদে সঙ্কীর্ণ হতেছে পথ,—আসন্ন বিপদে কণ্টকিত কলেবর,তবু দৃঢ়করে ভয়ঙ্কর স্নেহে বক্ষে বাধি ল’য়ে তোরে বায়ুবলে অন্ধবেগে বিনাশের গ্রাসে ছুটিয়া চলেছি মূঢ় মত্ত অট্টহাসে উল্কার আলোকে,— শুধু তুমি আর আমি,— আর সঙ্গী বজহস্ত দীপ্ত অন্তর্যামী,— নাই সম্মুখের দৃষ্টি, নাই নিবারণ পশ্চাতের, শুধু নিক্ষে ঘোর আকর্ষণ নিদারুণ নিপাতের । সহসা একদা চকিতে চেতনা হবে, বিধাতার গদা মুহূৰ্ত্তে পড়িবে শিরে,—আসিবে সময়, ততক্ষণ পিতৃস্নেহে কোরো না সংশয়, আলিঙ্গন কোরো না শিথিল,—ততক্ষণ দ্রুত হস্তে লুটি লও সর্বব স্বার্থধন, হও জয়ী, হও সুখী, হও তুমি রাজা একেশ্বর – ওরে তোরা জয়বাদ্য বাজা । জয়ধ্বজ তোল শূন্যে । আজি জয়োৎসবে স্যায় ধৰ্ম্ম বন্ধু ভ্রাতা কেহ নাহি র’বে,— না র’বে বিদুর ভীষ্ম না র’বে সঞ্জয়, নাহি র’বে লোকনিন্দ লোকলজ্জা ভয়, > と"