পাতা:কাব্যগ্রন্থ (পঞ্চম খণ্ড).pdf/২২১

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


সোমক ভগবন, নিখিলের অশ্রী যেন করেছে স্বজন বাষ্প হ’য়ে এই মহা অন্ধকার লোক,— সূৰ্য্যচন্দ্রতারাহীন ঘনীভূত শোক নিঃশব্দে রয়েছে চাপি দুঃস্বপ্ন মতন নভস্তল,—হেথা কেন তব আগমন ? প্রেতগণ স্বগের পথের পাশ্বে এ বিষাদ লোক, এ নরকপুরী । নিত্য নন্দন-আলোক দূর হতে দেখা যায়,—স্বৰ্গযাত্ৰিগণে অহোরাত্রি চলিয়াছে, রথচক্রস্বনে নিদ্রাতন্দ্র দূর করি ঈর্ষ্যা-জর্জরিত আমাদের নেত্ৰ হ’তে । নিক্ষে মৰ্ম্মরিত ধরণীর বনভূমি—সপ্ত পারাবার চিরদিন করে গান—কলধবনি তা’র হেথা হ’তে শুনা যায় । ঋত্বিক মহারাজ, নাম’ তব দেবরথ হতে । ২০৭ নরক-বাস