পাতা:কাব্যগ্রন্থ (পঞ্চম খণ্ড).pdf/২২৭

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


পারি না করিতে যাহা ক্ষত্রিয়-তনয়— কহিলাম স্পর্শি তব পাদপদ্মদ্বয় । শুনিয়া কহিনু মৃত্যু হাসি’,—হে রাজন শুন তবে । আমি করি যজ্ঞ-আয়োজন, তুমি হোম কর দিয়ে আপন সন্তান । তারি মেদ-গন্ধ-ধুম করিয়া আব্ৰাণ মহিষীরা হইবেন শত পুত্রবর্তী— কহিনু নিশ্চয় —শুনি নীরব নৃপতি রহিলেন নত শিরে | সভাস্থ সকলে উঠিল ধিক্কার দিয়া উচ্চ কোলাহলে । কণে হস্ত রুধি কহে যত বিপ্রগণ ধিক পাপ এ প্রস্তাব –মৃপতি তখন কহিলেন ধীরস্বরে—তাই হবে প্রভু, ক্ষত্রিয়ের পণ মিথ্যা হইবে না কভু । তখন নীরব আৰ্ত্ত বিলাপে চৌদিক কাদি উঠে,—প্ৰজাগণ করে ধিক্ ধিক, বিদ্রোহ জাগাতে চায় যত সৈন্যদল ঘৃণাভরে । নৃপ শুধু রহিলা অটল । জ্বলিল যজ্ঞের বহ্নি। যজন সময়ে কেহ নাই,—কে আনিবে রাজার তনয়ে অন্তঃপুর হ’তে বহি । রাজভূত্য সবে আজ্ঞা মানিল না কেহ । রহিল নীরবে ૨.૩૭