পাতা:কাব্যগ্রন্থ (পঞ্চম খণ্ড).pdf/৩২১

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


লক্ষীর পরীক্ষা ক্ষীরো না না ডেকে দে না । আজ কি জন্ত মন আছে মোর বড় প্রসন্ন। (ঠাকুরাণীর প্রবেশ ) ঠাকুরাণী বিপদে পড়েছি তাই এনু চলে’ । ক্ষীরো সে ত জানা কথা ! বিপদে না প’লে শুধু যে আমার চাদ মুখখানি দেখতে আসনি সেটা বেশ জানি । ঠাকুরাণী চুরি হয়ে গেছে ঘরেতে আমার— ক্ষীরো মোর ঘরে বুঝি শোধ নেবে তা’র । ঠাকুরাণী দয়া করে” যদি কিছু কর দান এ যাত্রা তবে বেঁচে যায় প্রাণ । ক্ষীরো তোমার মা কিছু নিয়েছে অন্যে দয়া চাও তুমি তাহার জন্তে ! ○o R