পাতা:কাব্যগ্রন্থ (ষষ্ঠ খণ্ড).pdf/২২৮

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


জীবনের হানাহানি, প্রাণ নিয়ে টানাটানি, মত নিয়ে বাক্য বরিষণ, বিদ্যা নিয়ে রাতারাতি পুথির প্রাচীর গাথি প্রকৃতির গণ্ডী বিরচন, কেবলি নুতনে আশ, সৌন্দর্য্যেতে অবিশ্বাস, উন্মাদন চাহি দিনরাত, সে সকল ভুলে গিয়ে কোণে বসে খাতা নিয়ে মহানন্দে কাটিছে প্রভাত । দক্ষিণের বারীন্দায় বেড়াই মুগ্ধের প্রায়, অপরাহ্লে পড়ে তরুচ্ছায়া, কল্পনার ধনগুলি হৃদয়-দোলায় তুলিপ্রতিক্ষণে লভিতেছে কায়া । সেবি’ বাহিরের বায়ু বাড়ে তাহদের আয়ু, ভোগ করে চাদের অমিয়, ভেদ করি মোর প্রাণ জীবন করিয়া পান হইতেছে জীবনের প্রিয় । এত তারা জেগে অাছে নিশিদিন কাছে কাছে এত কথা কয় শত স্বরে, তাহাদের তুলনায় আর সবে ছায়াপ্রায় আসে যায় নয়নের পরে । অাজ সব হ’ল সারা, বিদায় লয়েছে তাPরা, নুতন বেঁধেছে ঘরবাড়ী, এখন স্বাধীন বলে বাহিরে এসেছে চলে* অস্তরের পিতৃগৃহ ছাড়ি’ ।