পাতা:কাব্যগ্রন্থ (ষষ্ঠ খণ্ড).pdf/২৯৩

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


দ্বিতীয় অঙ্ক ক্ষুধিত বিহঙ্গশিশু অরক্ষিত নীড়ে চেয়ে থাকে মা’র প্রত্যাশায়, কাছে আসে লুব্ধ কাক, ব্যগ্ৰকণ্ঠে তান্ধশাবকের ম। মনে করিয়া তারে করে ডাকাডাকি, হারায় কোমল প্রাণ হিংস্রচঞ্চঘাতে, তেমনি কি তোর ব্যবসায় ? প্রেম মিথ্যা, স্নেহ মিথ্যা, দয়া মিথ্যা, মিথ্যা আর সব, সত্য শুধু অনাদি অনন্ত হিংসা ! তবে কেন মেঘ হ’তে ঝরে আশীৰ্ববাদসম বৃষ্টিধারা দগ্ধ ধরণীর বক্ষপরে, গলে আসে পাষাণ হইতে দয়াময়া ক্রোতস্বিনা মরুমাঝে, কোটি কণ্টকের শিরোভাগে কেন ফুল ওঠে বিকশিয়া ? ছলনা করেছ মোরে প্রভু ! দেখিতেছ মাতৃভক্তি রক্তসম হৃদয় টুটিয়া ফেটে পড়ে কি না । অমারি হৃদয় বলি দিলে মাতৃপদে । ওই দেখ হাসিতেছে মা আমার স্নেহপরিহাসবশে । বটে, তুই রাক্ষসী পাষাণী বটে, মা আমার রক্ত পিয়াসিনা ! নিবি মা আমার রক্ত— ঘুচাবি সন্তানজন্ম এ জন্মের তরে, দিব ছুরি বুকে ? এই শিরা-ছেড়া রক্ত