পাতা:কাব্যগ্রন্থ (ষষ্ঠ খণ্ড).pdf/৩৪০

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


বিসর্জন মিথ্যারে রাখিয়া দিই মন্দিরের মাঝে বহুযত্নে, তবুও সে থেকেও থাকে না । সত্যেরে তাড়ায়ে দিই মন্দির বাহিরে অনাদরে, তবুও সে ফিরে ফিরে আসে । অপর্ণা, যাস্নে তুই, তোরে আমি আর ফিরাব না । আয়, এইখানে বসি দোহে । অনেক হয়েছে রাত । কৃষ্ণপক্ষশশী উঠিতেছে তরু-অন্তরালে । চরাচর সুপ্তিমগ্ন, শুধু মোরা দোহে নিদ্রাহীন । অপণা বিষাদময়ি, তোরেও কি গেছে ফাকি দিয়ে মায়ার দেবতা ? দেবতায় কোন আবশ্যক ? কেন তা’রে ডেকে আনি আমাদের ছোট-খাটো সুখের সংসারে ? তা’রা কি মোদের ব্যথা বুঝে ? পাষাণের মত শুধু চেয়ে থাকে ; আপন ভায়েরে প্রেম হ’তে বঞ্চিত করিয়া, সেই প্রেম দিই তা’রে, সে কি তা’র কোনো কাজে লাগে ? এ সুন্দরী সুখময়া ধরণী হইতে মুখ ফিরাইয়া তা’র দিকে চেয়ে থাকি, সে কোথায় চায় ? তা’র কাছে ক্ষুদ্র বটে তুচ্ছ বটে, তবু ত আমার মাতৃধর ; তা’র কাছে কীটবৎ তবু ত আমার ○ミや