পাতা:কাব্যগ্রন্থ (সপ্তম খণ্ড).pdf/২২২

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


খেয়া নয়নে তব কিসের এত গ্লানি, রক্তে তব কিসের তরলতা ? আঁধার হ’তে এসেছে নাহি জানি তোমার প্রাণে কাহার কি বারতা । সপ্তঋষি গগনসীমা হ’তে কখন কি যে মন্ত্র দিল পড়ি,— তিমির রাতি শবদহান স্রোতে হৃদয়ে তব অসিল অবতরি । বচনহারা অচেনা অদভুত তোমার কাছে পাঠাল কোন দূত ? এ মেলা যদি না লাগে তব ভালো, শান্তি যদি না মানে তব প্রাণ, সভার তবে নিবায়ে দিব আলো, বাশির তবে থামায়ে দিব তান । স্তব্ধ মোরা আঁধারে র’ব বসি, ঝিল্লিরব উঠিবে জেগে বনে, কৃষ্ণরাতে প্রাচীন ক্ষীণ শশী চক্ষে তব চাহিবে বাতায়নে । পথ-পাগল পথিক রাখ কথা, নিশীথে তব কেন এ অধীরতা ? ᎼᏜbr