পাতা:কাব্যগ্রন্থ (সপ্তম খণ্ড).pdf/২৪৫

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


বসেছিল জ্যোৎস্না রাতে স্নিগ্ধ শীতল আঙিনাতে, কয়েছিল সবাই মিলে নানাদেশের কথা । প্রভাত হ’লে পার্থীর গানে জেগেছিল নুতন প্রাণে, তলেছিল ফুলের ভারে পথের তরুলতা । আমি যে দিন এলেম, সেদিন দীপ জলে না ঘরে । বহুদিনের শিখার কালী তাঁকো ভিতের পরে । শুঙ্গজলা দীঘির পাড়ে জোনাক ফিরে ঝোপে ঝাড়ে, ভাeা পথের বাশের শাখা ফেলে ভয়ের ছায়া । আমার দিনের যাত্রাশেষে কার অতিথি হলেম এসে ? হয় রে বিজন দীর্ঘ রাত্রি, হায় রে ক্লান্ত কায়া । ૨૨ છે