পাতা:কাব্যগ্রন্থ (সপ্তম খণ্ড).pdf/২৫১

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


দীঘি শেওলা-পিছল পৈঠা বেয়ে নামি জলের তলে একটি একটি করে’ ডুবে যাবার সুখে আমার ঘটের মত যেন অঙ্গ উঠে ভরে । ভেসে গেলেম আপন মনে ভেসে গেলেম পারে, ফিরে এলেম ভেসে, সাতার দিয়ে চলে গেলেম, চলে’ এলেম যেন সকল-হারা দেশে ! ওগো বোবা, ওগো কালো, স্তব্ধ সুগভীর, গভীর ভয়ঙ্কর, তুমি নিবিড় নিশীথ রাত্রি বন্দী হ’য়ে আছ, মাটির পিঞ্জর । পাশে তোমার ধুলার ধরা কাজের রঙ্গভূমি, প্রাণের নিকেতন, হঠাৎ থেমে তোমার পরে নত হ’য়ে পড়ে’ দেখিছে দপণ । তীরের কৰ্ম্ম সেরে আমি গায়ের ধূলো নিয়ে নামি তোমার মাঝে ; এ কোন অশ্রুভরা গীতি ছলছলিয়ে উঠে কানের কাছে বাজে ? ミミ°