পাতা:কাব্যগ্রন্থ (সপ্তম খণ্ড).pdf/৩৭৫

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


বঁশি লই আমি তুলিয়া । তারা ক্ষণতরে পথের উপরে বোঝা ফেলে বসে ভুলিয়া । আছে যাহা চিরপুরাতন তা’রে পায় যেন হারাধন, বলে “ফুল এ কি ফুটিয়াছে দেখি ! পাখী গায় প্রাণ খুলিয়া !” তে রাজন তুমি আমারে রেখো চিরদিন বিরামবিহীন তোমার সিংহ-ডয়ারে । যারা কিছু নাহি কহে যায়, সুখ-দুখ-ভার বঙ্গে’ যায়, তা’রা ক্ষণতরে বিস্ময়ভরে দাড়াবে পথের মাঝারে, তোমার সিংহ-দুয়ারে! \වA X উৎসর্গ