পাতা:কাব্যগ্রন্থ (সপ্তম খণ্ড).pdf/৪১৪

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


উৎসর্গ ফুলের গন্ধে চুপে চুপে আজি সোনার কাঠিরূপে ভাঙাল তা’র চিরযুগের ঘুম। দেখ চে ল’য়ে মুকুর করে তাঁকো তাহার ললাটপরে কোন জনমের চন্দন-কুকুম ! অাজকে হৃদয় যাহা কহে মিথ্যা নহে সত্য নহে, কেবল তাহা অরুপ অপরূপ । খুলে গেছে কেমন করে? আজি অসম্ভবের ঘরে মর্চে-পড়া পুরানো কুলুপ। সেথায় মায়াদ্বীপের মাঝে নিমন্ত্রণের বীণা বাজে, ফেনিয়ে উঠে নীল সাগরের ঢেউ, মৰ্ম্মরিত-তমাল-ছায়ে ভিজে-চিকুর শুকায় বায়ে তাদের চেনে চেনে না বা কেউ । শৈলতলে চরায় ধেনু রাখালশিশু বাজায় বেণু চুড়ায় তারা সোনার মালা পরে। সোনার তুলি দিয়া লিখা চৈত্র মাসের মরীচিকা কাদায় হিয়া অপূর্ববধন-তরে। গাছের পাতা যেমন কাপে দখিন বায়ে মধুর তাপে, তেমনি মম র্কাপচে সারা প্রাণ ; কঁপিচে দেহে কঁপিচে মনে হাওয়ার সাথে আলোর সনে, মৰ্ম্মরিয়া উঠচে কলতান । \లిన) o