পাতা:কাহিনী-রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর.djvu/৫০

এই পাতাটিকে বৈধকরণ করা হয়েছে। পাতাটিতে কোনো প্রকার ভুল পেলে তা ঠিক করুন বা জানান।
৪৭
গান্ধারীর আবেদন


ছিন্ন সিক্ত হৃৎপিণ্ডে রক্তশতদলে
অঞ্জলি রচিয়া থাক্‌ জাগিয়া নীরবে
চাহিয়া নিমেষহীন। তার পরে যবে
গগনে উড়িবে ধূলি, কাঁপিবে ধরণী,
সহসা উঠিবে শূন্যে ক্রন্দনের ধ্বনি-
হায় হায় হায় রমণী, হায় রে অনাথা,
হায় হায় বীরবধূ, হায় বীরমাতা,
হায় হায় হাহাকার—তখন সুধীরে
ধুলায় পড়িস লুটি অবনতশিরে
মুদিয়া নয়ন। তার পরে নমাে নম
সুনিশ্চিত পরিণাম, নির্বাক্‌ নির্মম
দারুণ করুণ শাস্তি! নমাে নমাে নম
কল্যাণ কঠোর কান্ত, ক্ষমা স্নিগতম!
নমাে নমো বিদ্বেষের ভীষণা নির্বৃতি,
শ্মশানের ভস্মমাখা পরমা নিষ্কৃতি!


দুর্যোধন-মহিষী ভানুমতীর প্রবেশ
ভানুমতী
দাসীগণের প্রতি
ইন্দুমুখি, পরভৃতে, লহাে তুলি শিরে
মাল্যবস্ত্র অলংকার।
গান্ধারী
বৎসে,ধীরে, ধীরে!
পৌরভবনে কোন্ মহোৎসব আজি?