প্রধান মেনু খুলুন

পাতা:গল্পগুচ্ছ (চতুর্থ খণ্ড).pdf/১৯৭

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


ぬやb গল্পগুচ্ছ যেন তিনি মিলাইয়া দেখিতে চান যে এ মহেন্দ্রের সহিত পবেকার মহেন্দ্রের কোনো আদল আছে কি না ! এ মহেন্দু ঝ:টা মহেন্দু কি না! মহেন্দ্র অধিক বাক্যব্যয় না করিয়া তৎক্ষণাৎ রজনীর ঘরে চলিয়া গেলেন ও কতা গহিণীতে মিলিয়া ফস ফস করিয়া মহাপরামশ করিতে লাগিলেন। রজনী মহেন্দুকে দেখিয়া মহা শশব্যস্ত হইয়া পড়িল, কেমন অপ্রস্তুত হইয়া গেল। সে মনে করিতে লাগিল, মহেন্দ্র তাহাকে দেখিয়া কি বিরক্ত হইয়া উঠিয়াছে ! তাহার তাড়াতাড়ি বলিবার ইচ্ছা হইল যে, “আমি এখনই যাইতেছি, আমার সমস্তই প্রস্তুত হইয়াছে।’ যখন সে এই গোলমালে পড়িয়া কী করিবে ভাবিয়া পাইতেছে না, তখন মহেন্দু ধীরে ধীরে তাহার পাশেব গিয়া বসিল । কণী ভাগ্য! বিষম বরে জিজ্ঞাসা করিল, “তুমি নাকি আজই দিদির বাড়ি যাবে। কেন রজনী।” আর কি উত্তর দিবার জো আছে —“আমি তোমার কাছে অনেক অপরাধ করিয়াছি, আমি তোমাকে কট দিয়াছি, কিন্তু তাহা কি ক্ষমা করিবে না।” ওকি মহেন্দু! অমন করিয়া বলিয়ো না, রজনীর বকে ফাটিয়া যাইতেছে। —“বলো, তাহা কি ক্ষমা করিবে না।” রজনীর উত্তর দিবার কি ক্ষমতা আছে। সে পণে উচ্ছাসে কাদিয়া উঠিল। মহেন্দু তাহার হাত ধরিয়া বলিল, "একবার বলো ক্ষমা করিলে।” রজনী ভাবিল—সেকি কথা ! মহেন্দু কেন ক্ষমা চাহিতেছেন। সে জানিত তাহারই সমস্ত দোষ, সেই মহেন্দ্রের নিকট অপরাধী, কেননা তাহার জন্যই মহেন্দ্র এত কষ্ট সহ্য করিয়াছেন, গহ ত্যাগ করিয়া কত বৎসর বিদেশে কাল যাপন করিয়াছেন, সে কোথায় মহেন্দ্রের নিকট ক্ষমা চাহিবে— তাহা না হইয়া একি বিপরীত ! ক্ষমা চাহিবে কী, সে নিজেই ক্ষমা চাহিতে সাহস করে নাই। সে কি ক্ষমার যোগ্য। মহেন্দু রজনীর দলবল মস্তক কোলে তুলিয়া লইল । রজনী ভাবিল, এই সময়ে যদি মরি তবে কী সুখে মরি!' তাহার কেমন সংকোচ বোধ হইতে লাগিল, মহেন্দ্রের ক্লোড় তাহার নিকট যেন ভিখারীর নিকট সিংহাসন। মহেন্দ্র তাহাকে কত কী কথা বলিল, সে-সকল কথার উত্তর দিতে পারিল না। সে ভাবিল এ মধর স্বপন চিরস্থায়ী নহে—এই মহেতে মরিতে পাইলে কী সখী হই! কিন্তু এ অবস্থা কতক্ষণ রহিবে! রজনীর এ সংকোচ শীঘ্র দরে হইল। রজনী তাহার কোলে মাথা রাখিয়া কতক্ষণ কত কী কথা কহিল-কত আশ্রজেল, কত কথা, কত হাসি, সে বলিবার নহে। * মহেন্দ্র যখন উঠিয়া যাইতে চাহিল তখন রজনী তাহাকে আর-একটা বসিয়া থাকিতে অনুরোধ করিল, যাহা আর কখনও করিতে সাহস করে নাই। রজনীর একি পরিবতন ! যে সখে সে কখনও আশা করে নাই, আপনাকে যে সুখ পাইবার যোগ্য বলিয়া মনে করে নাই, সেই সােথ সহসা পাইয়াছে—আহাদে তাহার বকে ফাটিয়া যাইতেছিল- সে কী করিবে ভাবিয়া পাইতেছিল না। সেই সন্ধ্যাবেলাই সে মোহিনীর বাড়িতে গেল, তাড়াতাড়ি তাহার গলা জড়াইয়া DBD DDBB BBBS BBBD DDBB DDDSBD DDDDS DD BBB S সে মনে করিল মহেন্দ্র না জানি আবার কী অন্যায়াচরণ করিয়াছে। রজনী তাহাকে সকল কথা বলিতে লাগিল—শুনিয়া মোহিনীও আহাদে