প্রধান মেনু খুলুন

পাতা:গল্পগুচ্ছ (চতুর্থ খণ্ড).pdf/২০৭

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


ᎼᎸ Ꮜ গল্পগুচ্ছ তাঁহাকে বারণ করিত। কেহ যদি জিজ্ঞাসা করিত নরেন্দ্রকে ডাকিয়া দিবে ? সে কহিত, “কাজ নাই।" সে জানিত নরেন্দ্র কেবল বিরক্ত হইবে মাত্র। আজ রাত্রে কর্ণার পীড়া বড়ো বাড়িয়াছে। শিয়রে বসিয়া রজনী কাঁদিতেছে। আর পণ্ডিতমহাশয় কিছুতেই ঘরের মধ্যে স্থির থাকিতে না পারিয়া বাহিরে গিয়া শিশর ন্যায় অধীর উচ্ছাসে কাঁদিতেছেন। নরেন্দ্র গহে নাই। আজ কর্ণা একবার নরেন্দ্রকে ডাকিয়া আনিবার জন্য মহেন্দুকে অনুরোধ করিল। নরেন্দ্র যখন গহে আসিলেন, তাঁহার চক্ষ লাল, মুখ ফলিয়াছে, কেশ ও বস্ত্র বিশৃঙ্খল। হতবন্ধিপ্রায় নরেন্দ্রকে কর্ণার শষ্যার পাবে সকলে বসাইয়া দিল। কর্ণা কম্পিত হতে নরেন্দ্রের হাত ধরিল, কিন্তু কিছু কহিল না। আশ্বিন ১২৮৪ - ভাদ্র ১২৮৫