প্রধান মেনু খুলুন

পাতা:গল্পগুচ্ছ (তৃতীয় খণ্ড).djvu/১৩১

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


झाळ्ननाङ्गणाष्ठौ や8。 তাহার প্রতি তাহার গভীর স্নেহ এবং কর্ণা। সকল মানুষেরই প্রকৃতির মধ্যে বিধাতা এমন একটা-কিছু দেন যাহা তাহার প্রকৃতিবিরদ্ধে, নহিলে বনোয়ারি যে কেমন করিয়া পাখি শিকার করিতে পারে বোঝা যায় না। কিরণের কোলে একটি শিশর উদয় দেখিবে, এই ইচ্ছা বনোয়ারির মনে বহুকাল হইতে অতৃপ্ত হইয়া আছে। এইজন্য বংশীর ছেলে হইলে প্রথমটা তাহার মনে একট ঈষার বেদনা জন্মিয়াছিল, কিন্তু সেটাকে দরে করিয়া দিতে তাহার বিলৰ হয় নাই। এই শিশুটিকে বনোয়ারি খবই ভালোবাসিতে পারিত, কিন্তু ব্যাঘাতের কারণ হইল এই ষে, যত দিন যাইতে লাগিল কিরণ তাহাকে লইয়া অত্যন্ত বেশি ব্যাপাত হইয়া পড়িল। সন্ত্রীর সঙ্গে বনোয়ারির মিলনে বিস্তর ফাঁক পড়িতে লাগিল। বনোয়ারি পটই বঝিতে পারিল, এতদিন পরে কিরণ এমন একটা-কিছ পাইয়াছে যাহা তাহার হদয়কে সত্যসত্যই পণ করিতে পারে। বনোয়ারি যেন তাহার সন্ত্রীর হৃদয়হম্যের একজন ভাড়াটে; যতদিন বাড়ির কতা অনুপস্থিত ছিল ততদিন সমস্ত বাড়িটা সে ভোগ করিত, কেহ বাধা দিত না-এখন গহস্বামী আসিয়াছে তাই ভাড়াটে সব ছাড়িয়া তাহার কোণের ঘরটি মাত্র দখল করিতে অধিকারী । কিরণ সেনহে যে কতদর তন্ময় হইতে পারে, তাহার আত্মবিসর্জনের শক্তি যে কত প্রবল, তাহা বনোয়ারি যখন দেখিল তখন তাহার মন মাথা নাড়িয়া বলিল, এই হাদয়কে আমি তো জাগাইতে পারি নাই, অথচ আমার যাহা সাধ্য তাহা তো করিয়াছি।’ শধে তাই নষ, এই ছেলেটির সত্রে বংশীর ঘরই যেন কিরণের কাছে বেশি আপন হইয়া উঠিয়াছে । তাহার সমস্ত মৰ্ম্মণা আলোচনা বংশীর সঙ্গোই ভালো করিয়া জমে। সেই সাক্ষাবধি সক্ষমশরীর রসরক্তহীন ক্ষীণজীবী ভীর মানুষটার প্রতি বনোয়ারির অবজ্ঞা ক্ৰমেই গভীরতর হইতেছিল। সংসারের সকল লোকে তাহাকেই বনোয়ারির চেয়ে সকল বিষয়ে ষোগ্য বলিয়া মনে করে তাহা বনোয়ারির সহিয়াছে ; কিন্তু আজ সে যখন বারবার দেখিল, মানুষ হিসাবে তাহার মন্ত্রীর কাছে বংশীর মাল্য বেশি, তখন নিজের ভাগ্য এবং বিশ্বসংসারের প্রতি তাহার মন প্রসন্ন হইল না। এমন সময়ে পরীক্ষার কাছাকাছি কলিকাতার বাসা হইতে খবর আসিল, বংশী জনরে পড়িয়াছে এবং ডাক্তার আরোগ্য অসাধ্য বলিয়া আশঙ্কা করিতেছে। বনোয়ারি কলিকাতায় গিয়া দিনরাত জাগিয়া বংশীর সেবা করিল, কিন্তু তাহাকে বাঁচাইতে পারিল না । মৃত্যু বনোয়ারির স্মতি হইতে সমস্ত কাঁটা উৎপাটিত করিয়া লইল। বংশী যে তাহার ছোটো ভাই এবং শিশুবয়সে দাদার কোলে যে তাহার মেহের আশ্রয় ছিল, এই কথাই তাহার মনে আশ্রধৌত হইয়া উক্তজবল হইয়া উঠিল। এবার ফিরিয়া আসিয়া তাহার সমস্ত প্রাণের যত্ন দিয়া শিশুটিকে মানুষ করিতে সে কৃতসংকল্প হইল। কিন্তু, এই শিশু সম্বন্ধে কিরণ তাহার প্রতি বিশ্বাস হারাইয়াছে। ইহার প্রতি তাহার স্বামীর বিরাগ সে প্রথম হইতেই লক্ষ্য করিয়াছে। স্বামীর সম্ভবন্ধে কিরণের মনে কেমন একটা ধারণা হইয়া গেছে যে, অপর সাধারণের পক্ষে যাহা স্বাভাবিক তাহার স্বামীর পক্ষে ঠিক তাহার উলটো । তাহাদের বংশের এই তো একমাত্র ফুলপ্রদীপ, ইহার ল্যে ষে কী তাহা আর-সকলেই বোঝে, নিশ্চয় BDDDD BBBB BDD BB BBB DD DBBB BB BBDD BS BBB BBDDD