পাতা:গৌতমীয়-তন্ত্রম্‌.djvu/১৫

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


> গৌতমীয়তন্ত্রম দশাক্ষর ইতি থাতে মন্ত্ররাজঃ পরাৎপরঃ । বীজপূৰ্ব্বে জপশ্চাস্ত রহস্তং কথিতং মুনে ॥ ২৮ ॥ লুপ্তবীজস্বভাবত্বাৎ দশার্ণ ইতি কথ্যতে । নারদোৎস্ত মুনিঃ প্রোক্তশ্বনে বিরাড়িতি স্মৃতম্ ॥২৯ ॥ শ্ৰীকৃষ্ণো দেবতা চাস্ত দুর্গাধিষ্ঠাতৃদেবতা । মহেশ্বরমুখাজ জ্ঞাত্বা য: সাক্ষাত্তপসী মজুম্ ॥ ৩০ ॥ স সাধয়তি শুদ্ধাত্মা স তপ্ত ঋষিরীরিতঃ । গুরুত্বাশ্মস্তকে চাস্ত দ্যাসন্তু পরিকীৰ্ত্তিতঃ ॥ ৩১ ॥ সৰ্ব্ববেদব্যাপকত্ব দ্বিরাড়িতি নিগদ্যতে । সৰ্ব্বেষামপি তত্ত্বানাং ছাদনাচ্ছন উচ্যতে ॥ ৩২ ৷ অক্ষরত্বাৎ পদত্বাচ্চ মুখে ছন্দঃ প্রকীৰ্ত্তিতম্। বিনিয়োগোহস্ত মন্ত্রস্ত পুরুষাৰ্থচতুষ্টয়ে ॥ ৩৩ ৷ এই মন্ত্রের বীজ বর্ণসংখ্যার মধ্যে গণিত হয় না বলিয়াই, ইহাকে দশাক্ষর মন্ত্র বলা হয় ; কিন্তু জপকালে বীজযুক্ত করিয়াই ইছা জপ করিবে । হে মুনিবর, এই রহস্ত তোমাকে বলিলাম ; এখন এই মন্ত্রের ঋষিচ্ছন্দাদি বলিতেছি, শ্রবণ কর। এই মন্ত্রের ঋষি নারদ, বিরাটু ছন্দ, শ্ৰীকৃষ্ণ ইহার দেবতা। মন্ত্রাধিষ্ঠাত্রী দুর্গাদেবী এই মন্ত্রের অধিষ্ঠাত্রী । যিনি মহেশ্বরের মুখ হইতে জ্ঞাত্ত হইয়। তপস্ত দ্বারা যে মন্ত্রের সাধন করেন, 1ভনি সেই মন্ত্রের ঋষি বলিয়া অভিহিত হইয়া থাকেন এবং এই ঋষিই এই মন্ত্রের গুরু বলিয় তাহীকে মস্তকেই দ্যাস করা হয় ॥৩০-৩১ ॥ সৰ্ব্ববেদব্যাপকত্বনিবন্ধন বিবাটু, আচ্ছাদিত কবে বলিয়া ছন্দঃ, অতএব অক্ষরত্ব ও পদত্ব হেতু মুখেই কীৰ্ত্তিত