পাতা:চিঠিপত্র (দ্বাদশ খণ্ড)-রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর.pdf/৩৫৪

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


হয়রান হয়ে পড়েছি । এই কিস্তিটা শেষ হলেই বাস, আর নয়। ইংলণ্ডে যাওয়ার কিছুই ঠিক নেই । যাবার ইচ্ছা অাদবেই নেই । যদি তামার বিধাতার ইচ্ছা হয় তাহলে যেমন করে হোক আমাকে টেনে নিয়ে যাবেন। আপাতত সেই কোণটাতে এসে বসেছি—চিঠির পর চিঠি লিখচি—তর্জমার পর তর্জমা দেখচি । শনি, মঙ্গল, রাহু বা কেতু, কোন গ্রহ যে তর্জমাব তাধিপতি লে ঠিক জানিনে— সেই গ্রহ আমার কোষ্ঠীতে সম্প্রতি খুব উচ্চ স্থানেই আছে– সেই গ্রহ শাস্তি হলেই তামি ও শাস্তি পাব । কিন্তু এ কথাও সকৃতজ্ঞভাবে অামাব মনে রাখা উচিত যে সেই তর্জমার গ্রহই আমাকে নোবেল প্রাইজ পাইয়েছিল । বিদ্যালয় না খুললে তোমরা বোধহয় এখানে আসবে না । ইতি ১১ই কাৰ্ত্তিক ১৩১৫ শুভাকাঙ্ক্ষী শ্রীরবীন্দ্রনাথ ঠাকুর ৭ সেপ্টেম্বর ১৯ ১৯ কল্যাণীয়াস্ত মুলুর অকস্মাৎ মৃত্যু সংবাদে মৰ্ম্মাহত হয়েচি। ওকে আমি মনে বিশেষ স্নেহ কৰতুম ! তোমাদের, বিশেষত তোমার মায়ের শোক অস্তরের সঙ্গে অনুভব করচি ৷ কিছু পরিমাণে বেদনার ক্ষমতাই অামাদের অাছে কিন্তু সান্তনীর ক্ষমতা ত নেই। ঈশ্বর তোমাদের শান্তি দিন এই প্রার্থনা করি । ইতি ২১ ভাদ্র ১৩২৬ শুভাকাজক্ষী ঐরবীন্দ্রনাথ ঠাকুর \రి:RC