পাতা:চিঠিপত্র (দ্বাদশ খণ্ড)-রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর.pdf/৩৬৪

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


শাস্তিনিকেতন (পত্র অগ্রহায়ণ ১৩২৬ ছাত্র মুলু দুর্গম স্থানে যাইবার, অজানা লক্ষ্য সন্ধান করিবার প্রতি মানুষের একটা স্বাভাবিক উৎসাহ আছে, বিশেষত যাদের বয়স অল্প । এঠ যাত্রা কালে নিজের শক্তি প্রয়োগ করিয়া BBB BB BBK BBuBB BBB BBBBBB KBB BBB BB S কেননা, এই বকম নিজের শক্তির পরিচয়েই মানুষের তত্ত্বপরিচয়ের প্রবলতা । এই কাৰণে আমার মত এই যে, শিক্ষাব প্রথম ভূমিকা সমাপা হইবার পরেই ছাত্রদিগকে এমন পাঠ দিতে হইবে যাহ। তাহাদেব পক্ষে যথেষ্ট কঠিন । অথচ শিক্ষক এই কঠিন পাঠ নাহাদিগকে এমন কৌশলে পার করাইয়া দিবেন যে, ইহা তাহাদের পক্ষে সম্পূর্ণ অসাধা না হয় । অর্থাং শিক্ষা প্রণালী এমন হওয়া উচিত, যাহাতে ছাত্রেরা পদে পদে দুরূহ তা অনুভব করে, অথচ তাই অতিক্রমও করিতে পারে । ইহাতে তাহণদের মনোযোগ সৰ্ব্বদাই খাটিতে থাকে এবং সিদ্ধিলাভের আনন্দে তাহা ক্লাস্ত হইতে পায় না । এখানকার বিদ্যালয়ে আমি যখন ইংরেজি শিখাইবার ভার লইলাম, তখন এই মত অনুসারে আমি কাজ করিতে প্রবৃত্ত হইলাম। পঞ্চম, চতুর্থ ও তৃতীয় শ্রেণীর ইংরেজি শিক্ষার দায়িত্ব আমার হাতে আসিল । তৃতীয় শ্রেণীতে আমি যে সকল ইংরেজি রচনা পড়াইতে সুরু করিলাম, তাহা

gס\ס\