পাতা:চিঠিপত্র (দ্বাদশ খণ্ড)-রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর.pdf/৫২৬

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


আশু প্রয়োজনের কথা উল্লিখিত হলেও প্রকৃতপক্ষে কবির এই অভিপ্রায় সফল হয়েছিল ১৯৩৯ (১৩৪৬) সালে লোকশিক্ষণ গ্রন্থমালার প্রথম প্রকাশের মধ্য দিয়ে । ‘অপূৰ্ব্বকে.দিয়েছি । মূল চিঠি ‘এসিয়া ও যুরোপ—প্রবাসী কার্তিক ১৩৩৫ সালে প্রকাশিত । অপূর্বকুমার চন্দ-কৃত এর *Ross on “Europe Asia and Africa' aton Net-f রিভিয়ুতে ডিসেম্বর ১৯২৮ সালে মুদ্রিত । পত্র ৯৪ ৷ ‘গাছের গল্প'– বলাই, ৯২ সংখ্যক পত্রে উল্লিখিত । “অপুৰ্ব্বর. পাঠাবেন'—এ বিষয়ে ৯৩ সংখ্যক পত্রের পরিচয় দ্রষ্টব্য । পত্র ১৫ । মডান রিভিয়ুর লেখাটি’—এটি নিশ্চিত করে জানা যায় না। অক্টোবর ১৯২৮-এ মডান রিভিয়ুতে প্রকাশিত সস্ত নিহল সিং 7f555 “DONOUGHMORE DY ARCHY FOR CEYLON’ প্রবন্ধটি কবির অভিপ্রেত হতে পারে । পত্র ৯৬ । রবীন্দ্রনাথ বিশ্বভারতীতে ভারতীয় সংস্কৃতির ৰিভিন্ন দিক নিয়ে অধ্যয়ন ও গবেষণার যে স্বত্রপাত করেছিলেন প্রাচীন জরোখুন্ত্রীয় ধর্মালোচনা ও ছিল তার অন্যতম । এজন্ত তিনি বোম্বাইয়ের ধনী পশিী সম্প্রদায়ের সহায়তা প্রত্যাশা করেছিলেন । f* 5 oé ista Bombay Chronicle "ifizita zfastfts cự. CYF. RNATUR: “The Indian Institute of Parsis' eziztos casol Q R : "I was trankly against the Parsis making large donations to Visva-Bharati. And that for two reasons. In the first place an institution like Shantiniketan located in India, 820