পাতা:চিঠিপত্র (সপ্তম খণ্ড)-রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর.pdf/১০৮

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


●● ১৯ নভেম্বর ১৯১৮ কল্যাণীয়াসু মীরা এবং তার ছেলের কঠিন পীড়া হয়েছিল। কিছুদিন হল রোগমুক্ত হয়েচে । রথীর সামান্যরকম ইনফ্লুয়েঞ্জা হয়েছিল, এখন সুস্থ হয়ে কলকাতা থেকে ফিরে এসেচে। এখানকার স্বাস্থ্যের অবস্থা ভালই। ভজু ভাল আছে। সন্তোষ স্ত্রী পুত্র নিয়ে দেওঘরে গিয়েছিলেন এবং তার মা বোনরা মুঙ্গেরে । সন্তোষ সস্ত্রীক সপুত্র রোগ নিয়ে এসে বহু দুঃখ ভোগ করে সম্প্রতি সেরে উঠেচেন । তার মা বোনেরা সকলেই মুঙ্গেরে গিয়ে পীড়িত হয়েছিলেন। এখন সেরে উঠেচেন । যারা আশ্রম ছেড়ে অন্যত্র গিয়েছিলেন সকলেই রীতিমত রোগ ভোগ করেচেন । ইতি ৩ অগ্রহায়ণ ১৩২৫ শুভাকাজক্ষী শ্রীরবীন্দ্রনাথ ঠাকুর ^9