পাতা:চিঠিপত্র (সপ্তম খণ্ড)-রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর.pdf/১৪৫

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


సి 8 ১৬ অক্টোবর ১৯২৯ শান্তিনিকেতন কল্যাণীয়াসু চিত্ত যখন উদ্ধান্ত হয় তখন মানুষ বাইরে আশ্রয় খুজে বেড়ায় কিন্তু মানুষের উপর আদেশ আছে তাকে আপনার আশ্রয় আপনি সৃষ্টি করে নিতে হবে । নিজের অন্তরের মধ্যে যতক্ষণ না ফিরিয়ে আনতে পারি ততক্ষণ সংসারের দীর্ঘ ও জটিল পথের আর অন্ত পাইনে । সব ভ্রমণ ও সব সন্ধানের শেষ নিজের মধ্যেই এইটে বুঝতে আমাদের অনেক সময় লাগে। নিজের মধ্যে সত্যে প্রতিষ্ঠিত হওয়াকেই বলে পরিত্রাণ, বাইরে তাকে হাৎড়ে বেড়াই কোথায় ? কিন্তু এ সব কথা কথা মাত্ৰ— বলে বিশেষ ফল নেই– অন্তরের মধ্যে সত্যে ধ্রুব হওয়া বলতে কী বোঝায় সেইটে ঠিক মতো বুঝতে পারলেই রক্ষা পাই । মানুষের জন্মকাল থেকে হাজার পথে বাইরের দিকে বিক্ষিপ্ত হওয়াই তার মনের অভ্যাস— কোন শক্তির দ্বারা সেই অভ্যাসকে দমন করা যেতে পারে এইটেই দুরূহ প্রশ্ন । এ সব বিষয়ে যেটা লক্ষ্য সেটাই উপায়। আর্থিক ব্যবসায়ে টাকা দিয়ে টাকা পেতে হয়— এও সেই রকম— নিজের মধ্যে পাথেয়রূপে যদি আনন্দ থাকে তবে সেইটেই গম্যস্থানের আনন্দনিকেতনে নিয়ে যায় । তুমি আমার আশীৰ্ব্বাদ গ্রহণ করে । ইতি ৩০ আশ্বিন ১৩৩৬ শুভাকাঙ্ক্ষী শ্রীরবীন্দ্রনাথ ঠাকুর