পাতা:চিঠিপত্র (সপ্তম খণ্ড)-রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর.pdf/১৫

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


তথাপি সে সকল কাজের সঙ্গে আমাদের নানা স্বার্থ নানা বাধ্যবাধকতা জড়িত থাকে । দিনের মধ্যে অন্তত একটা কোনো কাজ যদি ইচ্ছাপূর্বক, বাধ্য না হইয়া, সমস্ত ফলকামনা নিঃশেষে ত্যাগ করিয়া তাহাকে সম্পূর্ণ সমর্পণ করিতে পার তবে সেই কৰ্ম্মের মধ্যে তোমার পূজা সমাধা হইবে তোমার জীবন কৃতাৰ্থ হইবে । ভগবানের কাজে ছোট বড় নাই, তিনি ভাব গ্রহণ করেন— তুমি তোমার সাধ্য বুঝিয়া সামান্ত যাহা কিছু পার তাহাই করিয়ো । কৰ্ম্মে ভগবানের যে পূজা তাহাই শ্রেষ্ঠ । মাতঃ আমার এই আশীৰ্ব্বাদ পত্র তোমার কোনো কাজে লাগিবে কিনা জানিনা কারণ, আশীৰ্ব্বাদ সার্থকভাবে করিবার শক্তি সকলের নাই— আমিও ফলকামনা নিরপেক্ষ হইয়া ঈশ্বরের উদেশ করিয়া এই পত্ৰখানি তোমাকে প্রেরণ করিলাম— তাহারই জয় হউক ।