পাতা:চিঠিপত্র (সপ্তম খণ্ড)-রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর.pdf/১৭৭

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


১৮ ১১ অগস্ট ১৯১১ હૈં বোলপুর কল্যাণীয়াসু মা, পূর্বের চেয়ে এখন আমি অনেকটা ভাল আছি। তোমার মাতার “প্রবাহ” বইখানি আমি গিরিডি থাকিতে দেখিয়াছিলাম। কবিতাগুলির মধ্যে একটি স্নিগ্ধতা আছে— তোমার মার যে স্বাভাবিক কবিত্বশক্তি আছে তাহাতে সন্দেহ নাই । আমাদের দেশের স্ত্রীলোকদের কবিত্বশক্তি থাকিলেও তাহার পূর্ণ বিকাশ ঘটিতে পারে না। র্তাহারা অন্তঃপুরে যে পারিবারিক গণ্ডিটুকুর মধ্যে বদ্ধ থাকেন সেখানে জীবনের অভিজ্ঞতা সঙ্কীর্ণ এবং সেখানে কল্পনাবৃত্তি প্রসরতা লাভ করিতে পারেন । তাহা ছাড়া নানা উচ্চশ্রেণীর সাহিত্যরচনার সহিত পরিচয়ের দ্বারা চিত্তবৃত্তির যে স্মৃত্তি ঘটে আমাদের মেয়েদের সে সুযোগও অতি অল্প । এই জন্য আমাদের লেখিকাদের কবিতা সঙ্কীর্ণ পরিধির মধ্যে তুৰ্ব্বলভাবে বিচরণ করে— তাহার মধ্যে সরলতা ও কোমলতা থাকে কিন্তু যথেষ্ট শক্তি থাকেন । এই জন্য সাহিত্যে এইরূপ কবিতা কোনোমতেই নিত্যস্থান লাভ করে না। তাহা জুইফুলের মত এক সন্ধ্যার মধ্যেই ফুটিয়া ঝরিয়া পড়ে। কবির কবিত্বশক্তির অভাবে এরূপ ঘটে তাহা নহে– জগতের সঙ্গে মানবজীবনের সঙ্গে তাহাদের যোগ অতি সামান্ত বলিয়াই র্তাহাদের কবিত্ব কিছুদূর পর্য্যন্ত অঙ্কুরিত হইয়া আর বেশি > S >やの>