পাতা:চিঠিপত্র (সপ্তম খণ্ড)-রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর.pdf/১৯৩

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


কাদম্বিনী দত্ত ( ১২৮৫ ?-১৩৫০ ) লোকসমাজে স্থপরিচিত ছিলেন না, বা প্রচলিত অর্থে উচ্চশিক্ষিত ছিলেন না, কিন্তু তাহার ঈশ্বরজিজ্ঞাস। ও “অসামান্য ধীশক্তি” রবীন্দ্রনাথকে বিশেষভাবে মুগ্ধ করিয়াছিল— প্রায় ত্রিশ বৎসর কাল উভয়ের মধ্যে পত্ৰযোগে নানা বিষয়ে আলাপআলোচনা চলিয়াছিল। কাদম্বিনী দেবী মহিমচন্দ্র সরকার মহাশয়ের প্রথম কন্যা, কুষ্টিয়ার অন্তর্গত রূপিয়াট গ্রামের প্রাণগোপাল দত্তের সহিত র্তাহাঁর বিবাহ হয়। বিবাহের অনতিকাল পরেই স্বামীর মৃত্যু হইলে তিনি দর্শন ও সাহিত্যের আলোচনায় এই শোকের শাস্তির সন্ধানে উৎসুক হইয়া রবীন্দ্র-রচনার মধ্যে বিশেষ আশ্রয় লাভ করেন এবং ক্রমশ রবীন্দ্রনাথের সহিত পত্রব্যবহারেও প্রবৃত্ত হন। কাদম্বিনী দেবী রবীন্দ্র-রচনা দ্বারা অল্প বয়সেই কতদূর প্রবুদ্ধ হইয়াছিলেন রবীন্দ্রসাহিত্যচর্চায় তাহার সঙ্গিনী ও উৎসাহদাত্রী সরলাবাল সরকার তাহার একটি নিদর্শন দিয়াছেন ; ‘রাজর্ষি পড়িয়া তিনি এরূপ ব্যাকুল হইয়াছিলেন যে, মালঞ্চী গ্রামে পিত্রালয়ে দুর্গোৎসবে পশুবলি রহিত করিবার অভিপ্রায়ে তিনি আহার ত্যাগ করেন , তিনদিন পরে, বলি বন্ধ করিবার প্রতিশ্রুতি দিয়া বালিকাকে অণহারে সম্মত করানো যায় । বনলতা দেবী -সম্পাদিত, “কেবল মহিলাদিগের দ্বারা পরিচালিত ও লিখিত ‘অন্তঃপুর মাসিক পত্রে ( প্রকাশ ১৩০৪ মাঘ ) কাদম্বিনী দেবীর কোনো কোনো রচনা প্রকাশিত হইয়াছিল। সরলা দেবী চৌধুরানী -প্রতিষ্ঠিত ভারত-স্ত্রী-মহামণ্ডলে তিনি কয়েক বৎসর শিক্ষকতা করেন । f কাদম্বিনী দেবীর ভ্রাতা ‘মৌচাক-সম্পাদক স্বধীরচন্দ্র সরকার রবীন্দ্রনাথের মূল পত্রগুলি রবীন্দ্র-জন্ম-শতবার্ষিক উৎসব উপলক্ষে শাস্তিনিকেতন রবীন্দ্রসদনে অনুগ্রহপূর্বক দান করিয়াছেন। > २ ➢ ግ\ó