পাতা:চিঠিপত্র (সপ্তম খণ্ড)-রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর.pdf/৭১

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


હૈં 16, More's Garden, Cheyne Walk, S. W. মা, তোমার পত্ৰখানি পাইয়া আনন্দিত হইলাম । আনন্দের বিশেষ কারণ এই যে কালই আমি ভারতবর্ষ যাত্রা করিতেছি এবং আমার প্রবাসের শেষদিনে তোমার পত্রে আমি যেন মাতৃভূমির আহবান লাভ করিলাম । l এদেশে আমি সমাদর পাইয়াছি কিন্তু সেইটেকেই আমি সকলের চেয়ে বড় লাভ মনে করিনা । কিন্তু ভগবান যে জন্য এদেশে আমাকে টানিয়া আনিয়াছেন তাহার সন্ধান পাইয়াছি । তিনি আমার কাছে বিদেশীর ভিতর দিয়া আত্মীয়ের মূৰ্ত্তি ব্যক্ত করিবার ইচ্ছা করিয়াছিলেন । আমি শুধু বাহবা পাই নাই আমি হৃদয় পাইয়াছি। মানুষ যে মাতুষের কত কাছে তাহা দেখিয়াছি । ভাষা, ধৰ্ম্ম, ইতিহাস, আচার ও গিরি নদী সমুদ্রের ব্যবধান কতই তুচ্ছ– যেখানে সত্য মানুষটি বাস করে সেখানে কোনো ভেদ নাই । সেই ভেদবুদ্ধির হাত হইতে মুক্তি না পাইলে তাহার মন্দিরের দ্বার রুদ্ধ হইয়া থাকে। কারণ, মানুষের কাছে র্তাহার অখণ্ড প্রকাশই মানুষের পক্ষে তাহার সর্বশ্রেষ্ঠ প্রকাশ । সেই প্রকাশকে আমরা বর্ণভেদ বিজাতিবিদ্বেষ প্রভৃতি সহস্ৰ আকারে আচ্ছন্ন করিয়া ফেলি— সেই আচ্ছাদন সরাইয়া ফেলিতে হইবে— নহিলে এই (to