পাতা:চিত্রাবলি - দুর্গাদাস লাহিড়ী.pdf/১৪২

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


-- চিত্রাবলি। རྱ་ཙམ་ " অভাব নেই! তবে আরও বাড়াবাড়ি করতে গেলে, সে স্বতন্ত্র কথা !” বিশ্বনাথ।–“বাড়াবাড়িটা কি ! জীবনে একটা উচ্চ আকাঙ্ক তো চাই ।” - হরমোহন।–“কিন্তু মনে রাখবেন, সে আকাঙ্ক্ষার সীমা থাকা আবশুক ! বলেছিই তো, অবস্থার অনুরূপ ধীরে ধীরে প্রকৃত উন্নতির পক্ষে চেষ্টা করাই বিধেয় । সেই চেষ্টাতেই স্থখ —সেই চেষ্টাতেই আনন্দ ! সুখের বা আনন্দের সঙ্গে অশন-বসনের কোনও সম্পর্ক নাই। মনের সুখই মুখ-মনের আনন্দই আনন্দ ।” বিশ্বনাগ।—“কিন্তু প্রতিযোগিতার উচ্চ-আকাঙ্ক্ষা না থাকলে, মানুষ বড় হ’তে পারে না ।” হরমোহন ।–“প্রতিযোগিতার উচ্চ আকাঙ্ক্ষার আমি অন্তরায় হচ্ছি না। আমি বলছি কি, প্রতিযোগিতা ও উচ্চ-আকাঙ্ক আপনাপন গভীর মধ্যে হউক না কেন ? সংসারে যে অধুনা বিষম জীবন-সংগ্রাম উপস্থিত, আপন-আপন গওঁী উল্লঙ্ঘন করাই তাহার প্রধান কারণ । আমাদের পিতৃ-পিতামহগণ নিশ্চয়ই অনেক বিচার-বিতর্কের ও বিবেচনার পর সমাজ-বন্ধন স্থাপন করে গিয়েছেন। ব্রাহ্মণ-শূরাদির বর্ণবিভাগ ও কৰ্ম্মবিভাগ । নিশ্চয়ই বহু জ্ঞান-গবেষণার ফল। প্রতোক বা আপন-আপন বর্ণের অমৃষ্ঠেয় কৰ্ম্মের দ্বারাই যশোসন্ধান ও প্রতিপত্তি লাভে 韶、 تختہ St