পাতা:চিত্রাবলি - দুর্গাদাস লাহিড়ী.pdf/১৪৪

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


চিত্রাবলি । དྨད” . " হ’তে পারলেই অন্ত সমাজেও তার উচ্চ আসন আপনা-আপনিই হ’য়ে পড়ে। আজকাল অস্ত্যজ জাতির উদ্ধারের জন্ত একটা আন্দোলন উঠেছে, শুনতে পাই। কিন্তু কে কার উদ্ধারকর্ড ! আপন-আপন জাতি-ব্যবসায়ের মধ্য দিয়া তাহারা সমাজে যে থ্যাতি-প্রতিপত্তি লাভ করিয়াছিল, এখন তার শতাংশের একাংশও আছে বলিয়া মনে হয় না। দুই এক জন ছ'চার পাত ইংরেজী শিখে সভ্য বলে পরিগণিত হচ্ছে বটে ; কিন্তু তারাও যে তাদের অশিক্ষিত জাতিভাইকে সমাদর ক’রে, তা আমার মনে হয় না। আপনাদেরই গ্রামের হরেকৃষ্ণের কথাটা ধরুন না ! ইংরেজী শিখে, জাতভাই ত্যাগ ক’রে, সে শেষে ব্রাহ্ম হ’য়ে গেল ! শুনেছি, তার মেয়ের বিয়ের পাত্র পেল না বলেই সে আপন সমাজ ত্যাগ ক’রে গেল ।” বিশ্বনাথ –“হা, তা বৃটে! তাদের জাতের মধ্যে সব অশিক্ষিত, কাজেই তাকে—” হরমোহন বাধা দিয়া কহিলেন,—“কিন্তু আপন আপন বৃত্তি পালনে যার বড় হয়েছিল, তারা কি হরেকৃষ্ণ প্রভৃতির চেয়ে কম সম্মানভাজন ছিল ? ঐ হরেকৃষ্ণের বাপ তিমু সর্দারকে আমার বাবা ‘তিক্ষু দাদা’ বলে কতই আদর করতেন ! তার মানটা কি এর চেয়ে কম ছিল ? এই হরেকৃষ্ণ যে সমাজে গিয়েছে, তারাই বা কিসের খাতির করে। একটু তলিয়ে দেখতে গেলে, সে তার 缸 ثم ـ לסמ