পাতা:চিত্রাবলি - দুর্গাদাস লাহিড়ী.pdf/১৪৮

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


চিন্ত্রীর্ঘলি। བླླ་ཙམ་ —भ्रू হরমোহন এতক্ষণ নীরবে সকল কথাই শুনিভেছিলেন । এক্ষণে দীর্ঘনিশ্বাস পরিত্যাগ করিয়া কছিলেন,—“শেষ এই হ’ল!” বড়ই মৰ্ম্মাহত হইয়া, তিনি মনে মনে কছিলেন,—“এক জন বিলেত-ফেরত আধা-সাহেবের সঙ্গে - স্মৃতিরত্ন-মহাশয়ের পুত্র সমুদ্র-পথে গেল!” প্রকাতে স্মৃতিরত্ন মহাশয়কে জিজ্ঞাসিলেন,— “আচ্ছ, এ বিষয়ে আপনার কি অনুমতি ছিল ?” বিশ্বনাথ।–“না। আমাকে তো সে এ সব কথা কিছু লেখে-মি ! তবে আমি এ কয় দিন বাড়ী থেকে বেড়িয়ে এয়েছি । এর মধ্যে খদি কোন ও চিঠিপত্র গিয়ে থাকে ৷” ঠরমোহন বিশেষ চিন্তাম্বিত স্বরে কছিলেন,-"তাই তো ! আপনার অনুমতি না নিয়ে গেল !” এই সময় মরেন্দ্র কহিল,—“অধ্যাপক সাৰ্দ্দার সঙ্গে যাওয়ার জন্ত অনেক ছেলে উৎসুক ছিল। কিন্তু তিনি তাদের মধ্যে অমলকেই পসন্দ ক’রে নিলেন । এই অল্প দিনেই কলেজে অমল একটা খুব ভাল ছেলে বলে গণ্য হয়েছে।” পুত্রের মুখে অমলের এবম্বিধ প্রশংসাবাদ শুনিয়া, হরমোড়নের মনটা একটু দমিয়া গেল । তিনি মনে মনে কছিলেন,“আমার নরেন ও দেখছি, ঐ গৌরবকেই একটা গৌরব বলে মনে করতে শিখেছে। কি যে হবে!” পুত্রের পড়াশুনা বিষয়ে প্রশংসাবাদ শুনিয়া বিশ্বনাথের أهــــــــــــــسـ శి