পাতা:চিত্রাবলি - দুর্গাদাস লাহিড়ী.pdf/১৬৭

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


শিক্ষণ । དྨ་བ་ কিন্তু সে নীরবতা অধিক ক্ষণ স্থায়ী হইল না । যেন আপনআপনিই তাহার মুখ হইতে বিনির্গত হইল,—“হায়!—আমার অদৃষ্ট এই ছিল ? আসন্নকালে পুত্রের জণগধুষেরও ভাগী হইলাম না !” * স্মৃতিরত্ন মহাশয়ের মুখে অমলের সম্বন্ধে ঐৰূপ আক্ষেপের কথা শুনিয়া মার প্রাণ আবার কাপিয়া উঠিল। তিনি আধার উচ্চৈঃস্বরে ‘অমল অমল বলিয়া কাদিয়া উঠিলেন। সে কান্নার স্বর শুনিয়া, স্মৃতিরত্ন মহাশয়ের অবস্থান্তর মনে করিয়া, প্রতিবেশী আত্মীয়-স্বজন অনেকেই ছুটিয়া আসিলেন । র্তাহারা সকলেই অমলের জননীকে সাস্তুন দিতে লাগিলেন । স্মৃতিরত্ন মহাশয়ের এক জ্ঞাতি-ভাই কহিলেন,—“আমি কাল ক’লকাতা থেকে এসেছি। আপনারা অত উতলা হচ্ছেন কেন ? অ ল ভাল আছে, সে কলকাতায় এসেছে। সে হয় তো শীগগিরই বাড়ী আসবে।” - “এ্য—এ্য, অমল ফিরে এসেছে!”—স্কৃতিরত্ন মহাশয়ের আর বাক্য-স্ফূৰ্ত্তি হইল না। তিনি মনে মনে কহিলেন,—“আমার মুখটা তবে দেখছি ভাল রকম ক’রেই পুড়বে! হায় –হায় – এখনও কেন আমার মরণ হ’লে না ।” স্মৃতিরত্ন মহাশয়ের অবস্থান্তর উপলব্ধি করিয়া সকলে তাহার মুশ্রুষার জন্য ব্যাকুল হইলেন । $$')