পাতা:চিত্রাবলি - দুর্গাদাস লাহিড়ী.pdf/৭১

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


cशोन्नैौ-कांन । শোভার আপাদ-মস্তক যেন জলিয়া উঠিল। শোভার মনে হইল,—লে স্পষ্টই কোনও উত্তর দেয়-বিবাহে অমত প্রকাশ করে। কিন্তু রমণীমোহন অধিকক্ষণ সেখানে অপেক্ষা করিলেন না । কথাগুলি বলিয়াই তিনি কক্ষাস্তরে প্রস্থান করিলেন। পিতা প্রস্থান করিলে, শোভার প্রাণ উদ্বেগে উদ্বেলিত হইয়া উঠিল। শোভার শঙ্কা হইল—“তবে কি পত্ৰখানা পিতার হাতে পড়িয়াছে! তা না পড়িলে, পিতা আমায় বাহিরে যাইতে নিষেধ করিবেন কেন ?” - শোভার প্রাণে নানা চিন্তু নানা ভাবনা আসিয়া উদয় হইল। শোভা মনে মনে কহিল,—“আমি একবার র্যাহাকে 1, প্রাণ সমর্পণ করিয়াছি, তিনি ভিন্ন আমার অধিকার অন্ত কেহ হইতে পারে না । জাতি!—জাতি আবার কি ? পিতারই কথার ঠিক নাই দেখিতেছি। তিনি কতদিন কত সভায় বক্তৃতায় বলিয়াছেন,—‘জাতি আবার কি ? ঈশ্বরের স্বঃ মন্থন্তু সব সমান। তবে আবার তিনি কেন জাতির কথা তুলেন ? যিনিই যাহা বলুন, আমি কাহারও কথা শুনিব না। বাড়ীর । বাহির হইতে দিবে না ? না দেয়, এই ভাবেই আরাধ্য-ধনের ধ্যানে জীবন অভিবাহিত করিব।” । . পরদিন কালীঘাটের পাত্র স্বয়ং আসিয়া শোভাকে দেখিয় গেলেন। শোভা দেখা দিতে অনিচ্ছুক ছিল—আপত্তি জানাইয়া 曾就