পাতা:চিত্রাবলি - দুর্গাদাস লাহিড়ী.pdf/৭৮

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


চিত্রাবলি । - পর সাংসারিক অবস্থা দর্শন করিয়া, ষষ্ট্রপতির ভাবনা আরও যেন বাড়িয়া উঠিল। তবে কি যদুপতির লেখা পড়া বন্ধ হইবে ? এতদূর অগ্রসর হইয়াও তবে কি পরীক্ষা পৰ্য্যন্তও সামর্থ্যে কুলাইবে না ? যদুপতি জননীর নিকট প্রায়ই এই বলিয়া আক্ষেপ করিতে লাগিলেন । যদুপতির পিতা, চোঁদ বৎসর বয়সের সময় যদুপতির বিবাহ দিয়াছিলেন। চারি কস্তার পর তাহাদের এক পুত্র যদুপতি । তাহার পরও তাঁহাদের কনিষ্ঠ কন্যা জন্মগ্রহণ করেন। পুত্রের বিবাহ দিয়া পুত্রবধু ঘরে আনিবেন,—অনেক দিন হইতে শঙ্করনাথ ও কাত্যায়নীর মনে সে বাসনা জাগিয়া উঠিয়াছিল। কিন্তু উপযুক্ত ঘর-মেল না মিলায়, সৰ্ব্বসুলক্ষণ সুন্দরী পাত্রী না পাওয়ায়, অনেক দিন পর্য্যস্ত, তাছাদের মনের বাসনা মনেই আবদ্ধ ছিল। অবশেষে, অনেক সন্ধান-সুলভের পর, চন্দন-গ্রামের vবিশ্বরাম তর্কবাগীশের পৌত্রী কমলার সহিত যদুপতির বিবাহ-সম্বন্ধ স্থির হয়। মৃত্যুর চারি বৎসর পূৰ্ব্বে শঙ্করনাথ, যন্ত্রপতির বিবাহ দিয়া কমলাকে গৃহে আনয়ন করেন। বিবাহের সময় কমলার বয়ঃক্রম নয় বৎসর মাত্র। বিবাহের পর কমলা দুই তিন বার শ্বশুরালয়ে আসিয়াছিল। শঙ্করনাথের পীড়ার সময় কমলাকে যে আনয়ন করা হইয়াছে, সেই পৰ্য্যন্ত কমলা শ্বশুরালয়েই অবস্থিতি করিতেছে। যদুপতি পিতৃকাৰ্য্য উপলক্ষে বাড়ী আসিয়া অবধি এবার বরাবরই কমলাকে দেখিতে পাইতেছেন।

  1. . - الله

१२