পাতা:চিদ্বিলাস - বিনয় কুমার সান্যাল.pdf/৩৭

এই পাতাটিকে বৈধকরণ করা হয়েছে। পাতাটিতে কোনো প্রকার ভুল পেলে তা ঠিক করুন বা জানান।


বেদান্তদর্শন।

 মহর্ষি বেদব্যাস বেদান্তসূত্রের রচয়িতা। একমাত্র শ্রুতির উপরই বেদান্ত দর্শনের ভিত্তি সংস্থাপিত। প্রত্যক্ষ, অনুমান ও উপমান নিকৃষ্ট প্রমাণ বলিয়া স্থিরীকৃত হইয়াছে। মহর্ষি জৈমিনির কৃত দর্শনেরও মূল শ্রুতি। এই নিমিত্ত জৈমিনিদর্শনকে পূর্ব্ব মীমাংসা কহে, এবং বেদান্ত দর্শনকে উত্তর মীমাংসা কহে। জৈমিনি সমগ্র শ্রুতি হইতে কেবল কর্ম্মতত্ত্ব প্রাপ্ত হইয়াছিলেন, কিন্তু বেদব্যাস তাহা হইতে কেবল মাত্র অদ্বৈত ব্রহ্মতত্ত্ব প্রাপ্ত হইয়াছেন। তিনি বলেন যে, সমস্ত শ্রুতি বলিতেছেন কেবল একমাত্র ব্রহ্মই আছেন তদতিরিক্ত অন্য কিছুই নাই—একমেবাদ্বিতীয়ং। সাংখ্যকার পুরুষ ও প্রকৃতি রূপ দুইটি তত্ত্ব দেখিয়াছেন, পতঞ্জলিও দ্বৈতবাদী, ন্যায় বৈশেষিকও দ্বৈতবাদী, জৈমিনিও দ্বৈতবাদী কারণ তিনি কার্য্য ও কারণ স্বীকার করিয়া গিয়াছেন। কিন্তু বেদান্ত বলেন দুই নাই, ভেদ নাই; সর্ব্বং খল্বিদং ব্রহ্ম,