পাতা:চৈতালি-রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর.djvu/১০

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


চৈত্রের মধ্যাহ্নবেলা কাটিতে না চাহে © ছোটো কথা, ছোটো গীত, আজি মনে আসে • ‘জননী জননী’ বলে ডাকি তোরে ত্রাসে ৩ জন্মেছি তোমার মাঝে ক্ষণিকের তরে © তবু কি ছিল না তব মুখদুঃখ যত তুমি এ মনের স্বষ্টি, তাই মনোমাঝে তুমি পড়িতেছ হেসে তুমি যদি বক্ষোমাঝে থাক নিরবধি দাও ফিরে সে অরণ্য, লও এ নগর দিকে দিকে দেখা যায় বিদর্ভ, বিরাট দূর স্বর্গে বাজে যেন নীরব ভৈরবী দেবতামন্দির-মাঝে ভকত প্রবীণ নদীতীরে মাটি কাটে সাজাইতে পাজা নিবিড়তিমির নিশ, অসীম কাস্তার নিমেষে টুটিয়া গেল সে মহা প্রতাপ নির্মল তরুণ উষা, শীতল সমীর নির্মল প্রত্যুষে আজি যত ছিল পাখি পরম আত্মীয় ব’লে যারে মনে মানি পরান কহিছে ধীরে— হে মৃত্যু মধুর পুণ্যে পাপে দু:খে স্বথে পতনে উত্থানে বয়স বিংশতি হবে, শীর্ণ ততু তার বাতায়নে বসি ওরে হেরি প্রতিদিন বৃথা চেষ্ট রাখি দাও । স্তব্ধ নীরবতা বেল৷ দ্বিপ্রহর ר ס ۹۱ وS १२ وق سيا \ご)○ br" 8 ૨ 8ぐ。 8 Y ৭৬ 8 2 Ե Չ ●切ア ● ● 9 8 צף