পাতা:ডিটেক্‌টিভ পুলিস (প্রথম কাণ্ড) - প্রিয়নাথ মুখোপাধ্যায়.pdf/৯৪

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা হয়েছে, কিন্তু বৈধকরণ করা হয়নি।

৮৮

ডিটেক্‌টিভ পুলিস, ১ম কাণ্ড।


তিনি পাগল না হইয়াই জেলের ভিতর পাগল সাজিয়াছিলেন। তাঁহার পাগল সাজিবার প্রধান কারণ, যাহাতে কোনরূপে তিনি পাগলা হাঁসপাতালে যাইতে পারেন। কারণ তিনি পাগলা হাঁসপাতালের প্রধান ডাক্তারের বিশেষ পরিচিত, ও আর একজন বড় ডাক্তারের সহিত তাহার বিশেষ হৃদ্যতা ছিল। ডাক্তার বাবু তাঁহার পরিচিত ডাক্তারকে তোষামোদ বলেই হউক, বা অপর কোন অসৎ উপায় অবলম্বনেই হউক প্রথমেই, বশীভূত করিয়া রাখিয়াছিলেন। এবং মেয়াদ উত্তীর্ণ হইবার পর তাহারই পরামর্শ-অনুযায়ী ডাক্তার বাবু পাগল সাজিলেন, ও ক্রমে পাগলা হাঁসপাতালে আসিলেন। হাঁসপাতালের প্রধান ডাক্তারকে সেই ডাক্তার সাহেব যেরূপ বুঝাইলেন, সেইরূপই বুঝিলেন, ও পরিশেষে পূর্ব্বকথিত উপায় অবলম্বন করিয়া ডাক্তার বাবুকে অব্যাহতি প্রদান করিলেন।

 আমাদিগের ডাক্তার বাবু এখন আর পাগল নহেন, তিনি কিন্তু এখন কলিকাতা পরিত্যাগ করিয়াছেন। ডাক্তারি ব্যবসাই তাহার কলিকাতা পরিত্যাগ করিবার কারণ। এখন তিনি কোন চা বাগানের ডাক্তার হইয়া সেইস্থানেই সুখেই দিনযাপন করিতেছেন। জেল হইতে খালাস হইবার পর তাঁহার বিপক্ষে আর কোন অভিযোগ শুনা যায় নাই। ঈশ্বরের নিকট প্রার্থনা করি, ডাক্তার বাবুর সেই সকল কুপ্রবৃত্তির দিকে আর যেন দৃষ্টি পতিত না হয়।

সম্পূর্ণ।