পাতা:ধর্ম্মানুষ্ঠান (প্রথম খন্ড).pdf/৯

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


{ ه العا } ইহার মাতৃভক্তির উপন্যাস বৎ অনেক ঘটনা পরিবার মধ্যে শুনা যায়। দলেল রায় নানা উপায়ে নিজ সম্পত্তি বৃদ্ধি করেন । BBBDDBD DBBB DDDBDDBDD LDBD DiD S DDD BuBD করেন । বৰ্ত্তমান রাজা বাহাদুরের প্রধান সম্পত্তি মশিদ পরগণা BBBB BBBDBD BBYBDB SDDDDDD SS sBg S KEYKS DBDDBDD DBDBD DBD প্ৰকার প্রবাদ শুনা যায় । এক্ষণ তাক তথাকার যাবতীয় কাগজে বামোর্কে শ্ৰীদুৰ্গা স্বাক্ষরের পর স্বাক্ষর হয় এবং এ যাবৎ ঐ সম্পত্তি স্ত্রীলোকের নামে ছিল । দলেল রায়ের পুত্ৰ শুঠাম সিং রায়ের কান্দির নিকটবৰ্ত্তী জমুয়া গ্ৰামে বিবাহ হয়। ইনি রাণী তারিণী বলিয়া খ্যাত । ন্যায়রত্ন মহাশয় ১১৬৩ সালে সজ্ঞানে গঙ্গাগর্ভে জীবনলীলা বিসর্জন করেন । শুনা যায় তিনি নিজে পদব্ৰজে আত্মীয় ৰন্ধু বান্ধবকে সঙ্গে লইয়া গঙ্গাতীরে আসিয়া নশ্বর দেহ ত্যাগ ቕC፵ቭ ! ন্যায়রত্ন মহাশয়ের একমাত্ৰ পুত্ৰ কাশীকান্ত ভট্টাচাৰ্য্য ১১৩৩ সালে জন্মগ্রহণ করেন । ইনি পিতামহের ন্যায়। উগ্ৰতপা ও সাধক ছিলেন । জীবনের তিনি অধিকাংশ সময় তপস্যায় নিরত থাকিতেন । জন সমাগম ও জন সংঘের মধ্যে তিনি থাকিতে আদৌ ভাল বাসিতেন না । ইহার নিষ্ঠা ও ভগবৎ প্ৰেম দৰ্শন করিয়া কামাখ্যায় মহারাজা তাহাকে বার্ষিক বৃত্তি দিতেন। তিনি দীর্ঘজীবি ছিলেন না। কিন্তু যে সময় জীবিত ছিলেন তাহার অধিকাংশই কামাখ্যা পীঠে যাপন করেন । দলেল রায়ের ভ্ৰাতুপুত্র ও বর্তমান লালগোলার রাজা বাহাদুরের বৃদ্ধ প্রপিতামহ নীলকণ্ঠ রায় ও প্ৰপিতামহ আত্মারাম রায় এবং পুত্ৰ শুrাম সিং