পাতা:পাল ও বর্জিনিয়া.pdf/১০৭

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


;)やめ পাল ও বর্জিনিয়া। বাসনায় আরোহণ করে কিন্তু তৎপ্রাপ্তিতে বঞ্চিত হইয়া কেবল ঘোরতর গভীর নিনাদে গহ্বর সকল প্রতিধ্বনিত করিতে থাকে । অসহ্য যাতনায় কে কাহার তত্ত্ব করে, কেবা কাহাকে জিজ্ঞাসা করে, সকলে আপনাকে লইয়াই ব্যতিব্যস্ত । হা ! হতোমি ! মরিলাম রে! গেলাম রে! কেবল এই শব্দই সকলের মুখে শুনা যায়। স্থানমাত্রই প্রচণ্ড স্থৰ্য্যতাপে ও উষ্ণ বায়ুতে পরিপূর্ণ। গ্রীষ্মের যেমন গ্রাদুর্ভাৰ, রুমি দংশ মশক মক্ষিকাদিরও তেমনি উপদ্রব । মনুষ্য পশ্বাদির তাহাদিগকে যত দূর করিতে চেষ্টা পায় উহারাও তত তাহাদের শোণিত পানের উপায় দেখিতে থাকে । আঃ! এখানকার কি অসহ গ্রীষ্ম | এই প্রকার ভয়ানক সময়ে একদা রাত্রিকালে বৰ্জ্জিনিয়ার বড়ই ক্লেশ ৰোধ হইতে লাগিল । সে সমস্ত রাজি অমুখ বোধ হওয়াতে নিদ্রা যাইতে এবং শয়ন করিয়া থাকিতে সমর্থ হইল না। কেবল মুহমুহুঃ দীর্ঘ নিশ্বাস পরিত্যাগ করিতে লাগিল । অনন্তর সে গাত্রোথান করিয়া খানিক ক্ষণ ইতস্ততঃ পরিভ্রমণ করিতে লাগিল, কিন্তু তাহাতেও শাস্তি বোধ না হওয়াতে একবার ভূমিতলে উপবেশন করিয়া পশচাৎ শয্যায় গিয়া শয়ন করিল। নিদ্রা যাইবার জন্যে অনেক চেষ্টা করিতে লাগিল বটে, কিন্তু তাহার তৎকালীন মনের চাঞ্চল্যে-নিদ্রা হইবার বিষয় কি ? শয্যা কণ্টক স্বরূপ বোধ হওয়াতে তাহার শয়ান থাকাই ছুক্ষর হউয়া উঠিল । অনন্তর সে নিতান্ত বিরক্ত হইয়া গাত্রোথান করিল, এবং বাহির হইয়া বেড়া