পাতা:পাল ও বর্জিনিয়া.pdf/১১৭

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


পাল ও বজিনিয়া । و ج لا দেখিতেছি, যদি তাহাকে ছাড়িয়া যাওয়া হয়, তাহ। হইলে কি নিস্তার অাছে ? না মহাশয়! আমার যাওয়া হইতে পারিবেক না । আমি শরীর ধারণে এ সকল প্রিয় জন পরিত্যাগে কদাচ প্রবৃত্ত হইতে পারিব ন ቋቋ | পালের প্রমুখtৎ এতাদৃশ উত্তর শ্রবণ করিবার সময়ে আমার হৃদয় বিদীর্ণ হইতে লাগিল । সেই সময়ে বজ্জিনিয়া যাদৃশ অবস্থায় ক্লেশ ভোগ করিতেছিল, তাহা আমার অগোচর হয় নাই; বিশেষতঃ তাহার মাতা বিবি দিলাতুরও কৌশলক্রমে আমাকে তাহার অভিপ্রায় জানাইয়া ছিলেন যে, পাল ও বৰ্জ্জিনিয়াকে কতিপয় দিবসের জন্য কোন কৌশলে পৃথক, করিয়া রাখা কৰ্ত্তব্য । কিন্তু আমি তাহার সেই অতিপ্রায় পালকে তখন সঙ্কেত করিতে সাহস করিলাম না । এইরূপে ক্রমাগত কতিপয় দিন সেই সকল বিষয় লইয়া আন্দোলন হইতে লাগিল । ইতিমধ্যে শুনিতে পাইলাম, ৰিৰি দিলাতুরের পিসী ফান্স দেশ হইতে এক জাহাজ পাঠাইয়া দিয়াছেন এবং তৎসমভিব্যাহারে এক পত্রও প্রেরিত হইয়াছে । এত দিনের পর সেই বুদ্ধা আপন মরণ নিকটবর্তি দেখিয়া আপনার চির দুঃখিনী ভ্ৰাতৃকন্যাকে স্মরণ করিল। বিবি দিলাতুর কতবার কাকুক্তি ও বিনীতি করিয়া লিখিয়াছিলেন কিন্তু তখন তাহাতে তাহার পাষাণ-হৃদয় লোল হয় নাই । সমুচিত উপায় নহিলে তাদৃশ দারুণ কঠোর হৃদয়কে বিচলিত করা কাহার সাধ্য ? তাহ যুগসহ