পাতা:পাল ও বর্জিনিয়া.pdf/১৬০

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


পাল ও বর্জিনিয়া । ১ 8 ৯ মীর গ্রেট পরিধান করিয়া আমার পরিশ্রম সার্থক করিবে । একটা শিরস্ত্রাণ (টুপি) স্বহস্তে নিৰ্ম্মিত করিয়া পাঠাইতেছি দমিঙ্গকে দিবে। এবং মেরীর জন্য একখানি রুমাল পাঠাইতেছি তাহাকে প্রদান করবে। এতদ্ব্যতিরিক্ত আমার বহুদিনের সঞ্চিত নানা প্রকার সুস্বাদু ফল সকলও গোণীবদ্ধ করিয়া পাঠাইলাম । অনধ্যায়ের সময়ে অামি অনেক যত্নে, নিকটস্থ উত্তম২ উদ্যান হইতে নানাজাতীয় মুদৃশ্য ও মুরভি কুমুমের বীজ সকল সংগ্ৰহ করিয়া রাখিয়া ছিলাম, পৃথক২ নাম নির্দেশ করিয়া তাহাও এই সমভিব্যাহারে প্রেরিত হইল । অামাদের ও উপদ্বীপে যে২ পুষ্প জন্মিয় থাকে, এস্তলের বন্য পুষ্প সকল তদপেক্ষা অধিকাংশে উৎক্লষ্টতর। এ সকল যেমন মুদৃশ্য, সৌগন্ধ বিষয়েও তেমনি, কিন্তু ইহাদের একটাও এক প্রকার নহে । এই প্রযুক্ত কোনটার কি গুণ, কেমন গন্ধ, বর্ণ কিপ্রকার তাহ মনে রাখা যায় না । নিশ্চয় বোধ হইতেছে ধন-সম্পত্তি অপেক্ষা এ সকল ফল পুষ্পাদির বীজ পাইলে তোমার ও মাত! মার গ্রেটের যৎপরোনাস্তি অসুলভ সন্তোষ জন্মিবেক তাহাতে সংশয় নাই । ধনের যত মুখ তাহ ত দেখিতে পাইলে, কেবল ধনের জন্যই আমাদের অপরিহার্য্য ৰিচ্ছেদ হইল। আর যদি কখন কালস্তরে শুনিতে পাই, যে তোমরা যে সকল অতি। খৰ্জ্জুর, নারিকেল প্রভৃতি বৃক্ষ রোপণ করিয়াছ, তাহ। সম্যক প্রকারে বৰ্দ্ধিষ্ণু এবং পরস্পরের শাখা পল্লবাদু পরস্পরের সহিত মিলিত হইয়া মহতী শোভ ৰিস্তাৱ