পাতা:পাল ও বর্জিনিয়া.pdf/১৭১

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


১৬ a পাল ও বর্জিনিয়া । তাহার। আর আমার সেই অনিষ্ট পরামর্শ শুনিতে চাহে না । বরং লোক সংসর্গ পরিত্যাগ করিয়াছি বলিয়া অামাকেও যৎপরোনাস্তি নিন্দ করে । অধিকন্তু নানাপ্রকার প্ররোচনা দ্বারা ভূয়োভূয়ঃ এইরূপ অনুরোধ করিতে থাকে, যে আপনার লোক-সংসর্গ পরিত্যাগ করায় সমাজের একপ্রকার অপকার করা হইতেছে । আপনি এখন আমাদের দলাত্রান্ত হইয়। পরোপকার করত লোকযাত্রা নিৰ্ব্বাহ করুন । তাহার অবিরত বিষয়-সুখে লিপ্ত থাকিবীর জন্য তৎকালীন সামাজিক মুখের উল্লেখ করিয়া কেবল একপ্রকার নিজ দোষ ক্ষালন মাত্র করিয়া থাকে । সম্প্রতি আমি নিরালয়ে বাস করিয়া নিত্যই অপূৰ্ব্ব সুখসম্ভোগ করিতেছি । অতএব পুৰ্ব্বতন বৃথা বৈষয়িক প্রয়াস সকল এখন আর আমার মনে অনুভূতই হইতেছে না । এখন আমার না অাছে ধন, না আছে মান, কিছুই নাই। কোন বিষয়ের লিঙ্গাও নাই । উদর-পরায়ণ হইলেও যাহাহউক তদ্বিষয়েও আমি নিতান্ত নিস্পৃহ । ফলে আমি কিছুরই মধ্যে নহি, একথা অবলীলাক্রমেই বলিতে পারি । যাহারা নিরবচ্ছিন্ন বৈষয়িক মুখ ভোগের জন্য পরস্পর বিবদমান হয়, আমি তাহাদিগকে জলবুদ্ধদের সহিত তুলন। করিয়া থাকি । বুদ্ধ,দ সকল তটান্তমিলিত ੋਂ যেমন ভগ্ন হুইয়। নষ্ট হয়, তাহারাও তেমনি । ঃখের কথা কি কহিব ! ৰিবি-দিলাতুর, মার গ্রেট, -প্রভৃতির সহিত সাক্ষাৎ হওয়া অবধি আমার এখানফার এত সাধের মুখাবাস এক কালে ভগ্ন হইয়া