পাতা:পাল ও বর্জিনিয়া.pdf/১৭৩

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


४ ४ २ পাল ও রৰ্জিনিয়া । बळु शकर्तम श्रांभांटमङ्ग छूझेि°८थ श्रृंडिङ श्य डांश দেখিলে সহস। কালের দ্রুতগতি জানিতে পারা যায় ন। । তত্তাবৎই আমাদের সঙ্গে ২ হ্রাস ও নাশ প্রাপ্ত হয় ; কিন্তু যদি সেই সকল বস্তু একবার দেখিয়া পুনৰ্ব্বার কতিপয় বর্ষের পরে দেখিতে পাই তাহা হইলে কত সময় অতীত হইয়া গিয়াছে, তাহ আমরা বিলক্ষণ রূপেই অবগত হইতে পারি, এবং আমাদের পরমায়ুগত কালের প্রবাহ কত বেগে ও কিপ্রকারে সেই অনন্তু মহাকাল-সাগরে পতিত ও মিলিত হইতে চলিতেছে তাহাও আমাদের বোধগম্য হইতে পারে । সে যাহাহউক, পাল, সেই খজুরৱক্ষটি দর্শন করিবামাত্র, যেমন এক পর্য্যটনকারী ব্যক্তি বহুকালের পর স্বদেশের নিকটে উপস্থিত হইয়া যাহাদিগকে নিতান্তু শিশু ও অব্রুবাণ দেখিয়া গিয়াছিল, তাহাদিগকে তখন সস্তান সন্তুতিতে পরিব্রত দেখিলে ৰিমিত হয়, তেমনি এককালে বিলময়রসে নিমগ্ন হইল । গাছী দেখিবামাত্র অমনি তাহার মনে বর্জিনিয়ার প্রস্থানাবধি তৎকাল পর্য্যন্ত যে দীর্ঘকাল অতীত হইয়াছিল ভাহা আমরণ হইল । ইহাতে সে নিতান্ত ব্যাকুল হইয়। এক ২ বার মনে করিতে লাগিল “ একি উৎপাত হইল ! এ গাছটা এখনি কাটিয়া ফেলি, ইহা দেখিলে ষে আমার বুক বিদীর্ণ হয় ! এইরূপ ভাবিয়া সে কাটিতে উদ্যত হয়ই এমত সময়ে ಕಿ' তাহার মনে হইল, যে এগাছটি প্রিয়তমা বর্জিনিয়ার মত সরল, ইহাতে किडूमाज रङ्ग डाब নাই। মনেই এই প্রকার ভাবনা করিয়া সে অমনি তাহকে প্রেমালিঙ্গন এবং শুনিলে