পাতা:পাল ও বর্জিনিয়া.pdf/১৮০

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


পাল ও বর্জিনিয়া । ン や 。 বুদ্ধ ।–“বৎস! যে বিশ্বপতি এই বিশ্বরাজ্য পালন করিতেছেন, তিনিই তোমার সহায হইবেন, তিনিই তোমার মনোরথ পুর্ণ করিবেন । যদি তুমি বড় লোকের তোষামোদকতা না করিয়া সাধারণের হিত করিতে যত্ন কর, তিনি তাহ ই সফল করিবেন । পৃথিবীতে কি পুরুষ, কি স্ত্রী, কি রাজা, কি প্রজ, সকলেই বিশেয২ রিপুর পর তন্ত্র এবং একান্ত ভ্রান্ত ও মোহান্ধ। তাহাদের সেই প্রজ্বলিত হুতাশন তৃল্য রিপুমুখে আমরা সৰ্ব্বদাই আহুতিস্বরূপে নিপতিত হইতেছি, তথাপি যাহাতে আমাদিগকে সত্য ও সদাচারেব পথ হইতে ভ্ৰষ্ট হইতে না হয়, তাহা আমাদের সর্বপ্রযত্বেই কৰ্ত্তব্য । তবে ভূমি কি নিমিত্ত মনুষ্যগণমধ্যে প্রধান ও সুপ্রসিদ্ধ হইতে চাহ তাহা অামি বুঝিতে পারিতেছি না। আর এ বাসন যে মনুষ্যের স্বভাব সিদ্ধ তাহাও বলিতে পারি না । যদি ইহা স্বাভাবিক হু ইত তাহ হইলে প্রধান মনুষ্যমাত্রেই এইরূপ হইতে চাহিতেন । মুক্তরাং সৰ্ব্বদাই আত্মীয় স্বজন বন্ধু বান্ধবগণের সহিত ৰিবাদ বিসস্বাদ না করিয়া অামাদিগের কদাচ নিরুদ্বেগে কালহরণ করা হইত না , পরমেশ্বর আমার মত এই যে তোমাকে যে অবস্থায় রাখিয়াছেন তাহ1তেই তুমি সস্তুষ্ট থাক । আর তিনি যে তোমাকে ধনীদিগের নিকট কিছু য’চঞা করিতে গিয়া উহাদেৱ বিকট মুখ অবলোকন ক বান নাই এবং তোমাকে বড় দুঃখীদিগের নিকটেও কিছু প্রার্থনা করিতে প্ৰৱৰ্ত্ত করেন নাই, তাহাতেই তুমি ভঁাহাকে ধন্যবাদ কৰিতে, থাক। বাছারে! তুমি যে দেশে বাস করিতেছ, তথায় う意