পাতা:পাল ও বর্জিনিয়া.pdf/১৮৯

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


Ꮌ Ꮈ Þ পাল ও বর্জিনিয়া । নীচলোকের কৰ্ম্ম । ফলে তথাকার ক্লষকলোক কারিকর হইতেও নীচতর বলিয়া পরিগণিত ’ । পাল ।–“হায় "এমন কথা ত কখন শুনি নাই ? মানুষের পক্ষে যেটা অত্যন্ত প্রয়োজনীয়, তাহাই ইউরোপে ঘৃণিত বলিয়া গণ্য ”! । ৰুদ্ধ —“বৎস! তুমি পল্লীগ্রামে অবস্থিতি কর । নগরে থাকিলে কিরূপ ব্যবহার করিতে হয়, তাহ ভূমি কিছুই অবগত নহ” । পাল –“মহাশয় ! তবে কি নগরবাসী বড় মানুষেরাই মুখী ! কেননা তাহারা ধনব্যয়ে যাহা যখন ভোগ করিতে চাহে তাহ তখন ভোগ করিয়া মুর্থী হইতে পারে ” । বৃদ্ধ —না, না, উtহার কখন মুখী নহেন, কারণ র্তাহার। বিনাপরিশ্রমে বিশিষ্ট প্রকার মুখসম্ভোগ করিতে পান, সুতরাং তাহা মুখ বলিয়াই গণ্য হইতে পারে না । পরিশ্রমের পর বিশ্রাম করণের মুখ যে কি পর্যন্ত মুমধুর তাহা তুমি বিলক্ষণরূপই অবগত আছ, তাহ। আর সবিশেষ বলিবার আবশ্যক নাই । যেমন পরিশ্রমের পর বিশ্রাম সুখকর, তেমনি ক্ষুধা হইলে অন্ন, ও পিপাস পাইলে জলও মুখজনক বোধ করিও । বড় মানুষদিগের কতকগুলা ধনই আছে এইমাত্র ; ধন দ্বারা ভঁাহারা যখন যাহা ইচ্ছা করেন, তাহ তখনই অক্লেশে সাধন করিতে পারেন, কিন্তু এ সকল প্রকত মুখ উrহাদের ধন দ্বারা লব্ধ হইধরার বিষয় কি ? ( ধনাঢ্য লোকদিগের ধনদ্বারা দিব|রাত্র নানাবিধ মুখভোগ করিতেই পরিতৃপ্তির অরি