পাতা:পাল ও বর্জিনিয়া.pdf/১৯৩

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


> br R পাল ও বর্জিনিয়া । তইৰেক না । বজিনিয়া সেখান হইতে প্রচুর ধন লষ্টয়া আসিতেছে । সেই ধন দ্বারা আমাদের কৰ্ম্ম কাৰ্য্য সম্পাদনের মিমিত্ত অনেক দাস দাসী ক্রম্ব করিতে হইবেক । তাহার। যেমন আমাদের কাজ কৰ্ম্ম করিবে তেমনি আপনার ও করিবে সন্দেহ নাই । আপনি আমাদের ঘরেই থাকিলেন এবং দিবার ত্রি যাহাতে আহলাদ অামোদ জন্মে এমনি সকল কৰ্ম্মেতেই তৎপর হইবেন ।” এই সকল কথা বলিয়াই সে অমনি আমার নিকট কইতে গাত্রে থান করিয়া অাপন পরিবার দিগকে এই শুভ সংবাদ দিবার জন্য প্রস্থান করিল। প্রস্থান করিল বটে, কিন্তু যে অাশায় নিতান্ত মোহিত হইয়াছিল, অবিলম্বেই তাহাভে জলাঞ্জলি পড়িল । পরদিন পাল বিষণ্ণবদনে ও যৎপরোনাস্তি ক্ষুন্নমনে আমার নিকটে স্বাসিয়া কহিল “মহাশয় ! এ কি হইল, কিছুই বুঝিতে পারিতেছি না! বজিনিয়ার কোন পত্রই যে এ পর্য্যন্ত আমার হস্তগত হইল না, কারণ কি ? অনুমান হইতেছে, যদি সে ইউরোপ পরিত্যাগ করিত, তাহ। হইলে অগ্ৰে অমাদিগকে তাহাঁর সংবাদ না দিয়া কদাচই থাঞ্চিত না । যাহাহউক, আমি আর ভাৰিয়া বঁচিনা । উপায় কি করা যায় বলুন । নানাস্তানে তাহার বিষয়ে নানা কথা শুনিতে পাইতেছি, তাহ ষে নিতান্তই অমূলক হইবেক তাহারি বা সম্ভাবনা কি ? শুনিতেছি তাহার দিদিমা না কি সেখানকার এক জন ঃনি লোকের সঙ্গে তাহার বিবাহ দিয়াছেন । হায় ! এ কি সৰ্ব্বনাশ ! সামান্য লোকের ন্যায় বজ্জিনিয়াও