পাতা:পাল ও বর্জিনিয়া.pdf/১৯৯

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


>b-br পাল ও বর্জিনিয়া । লোকন করিব, ও তাহাদিগকে আলিঙ্গন করিয়া তাপিণ্ড দেহ সুশীতল করিব । আমি আজি তোমার নিকট যাইতে চাহিলাম, কিন্তু কর্ণধার অধীন সমুদ্রের মন্দভাব বুঝিতে পারিয়া অামাকে যাইতে নিষেধ করিলেন। তিনি বলিলেন “একেত ফুল এখান থেকে নিকট নয়, মধ্যে দৃষ্ট হইতেছে আকাশের নিস্তব্ধ ভাবে সমুদ্রের জল স্ফীত হইয়া উঠিতেছে । সুতরাং এসময়ে তোমাকে কোনমতেই পাঠাইতে পারি না ।” পত্র খানি পাঠ করা হইবা মাত্র “ ওরে বর্জিনিয়া এসে পন্থছিয়াছে, ওরে বজিনিয়া আসিয়া পহুছিয়াছে" বলিয়। তাহারা সকলেই চীৎকার ও গোলমাল করিয়া উঠিল । গৃহিণীরা ও দাস দাসীরা আনন্দ-সাগরে নিমগ্ন হইলেন । বিবি দিলাতুর পালকে নিকটে ভাকিয় কহিলেন “পাল ! তুমি এখনি আমাদের প্রতিবাসী-মহাশয়ের নিকটে গিয়া এই শুভ সংবাদ দিয়া অাইস । এই কথা বলিতে ন বলিতেই পাল আম’ন প্রস্তুত হইল । দমিঙ্গ তখনি একট। মসাল জ্বলিয়া লইয়া তখনি তাহার সঙ্গে কুটারাভিমুখে छ जल्न ! রাত্রি প্রায় দশটা হইয়াছে, আমি প্রদীপ নিৰ্ব্বাণ করিয়া শয়ন করিতে যাইতেছি, এমন সময়ে দেখিতে পাইলাম অনেকদূরে বনের ভিতর একটা আলো জ্বলিতেছে । খানিক পরে শুনিতে পাই লাম এক জন আমাকে ডাকি তে ডকিতে আসিতেছে, অনুভবSBBBS BBBB BBS BBBB BBBB BBB S BB BBBS তেছে বোধ হই ত্ব আমি আস্তে ব্যস্তে উঠিয়।